আগামী দিনে মোবাইল উৎপাদনে চীনকেও হার মানাবে ভারত, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ..

টেলিকম ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী রবি শঙ্কর প্রসাদ জানিয়েছেন, মোবাইল উৎপাদনে চিন’কে ছাপিয়ে যেতে হবে ভারতকে, এটাই ভারতের সর্ব প্রথম লক্ষ্য। সোমবার এফসিসিআইয়ের বার্ষিক সাধারণ সভায় শঙ্কর প্রসাদ বলেন, প্রোডাকশান লিঙ্কড ইন্সেনটিভ (PLI) প্রকল্পে বিশ্বের বড় সংস্থাগুলি বর্তমানে ভারতের সঙ্গে ব্যবসা করতে আগ্রহ দেখাচ্ছে৷  সরকার চায় ভারতকে শুধু মোবাইলই নয়, অন্যান্য ইলেকট্রনিক্স পণ্যেরও হাব বানাতে সেই কারণে পি এল আই প্রকল্পকে আরও বাড়ানো হচ্ছে,।

ভারত বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম মোবাইল প্রস্তুতকারক দেশ হয়ে উঠুক এটাই দেশের সর্বপ্রথম লক্ষ্য । কেন্দ্রীয় সরকার সমস্ত রকম সাহায্য করছে যাতে মোবাইল প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলোর উৎপাদনের জেরে মোবাইল তৈরিতে চিনকে ছাড়িয়ে যেতে পারে ভারত।

 

আত্মনির্ভরশীল ভারত গঠনের লক্ষ্যে বিশাল বড় পদক্ষেপ নিলো মোদি সরকার, এবার বিদেশে রপ্তানি হবে যুদ্ধ জাহাজ

 

 

প্রসঙ্গত, ২০১৭তে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম মোবাইল প্রস্তুতকারক দেশ হয় ভারতবর্ষ। ‘দ্য ন্যাশনাল পলিসি অন ইলেকট্রনিক্স’ ২০১৯ অনুসারে, ২০২৫-এর মধ্যে ভারতের ইলেকট্রনিক্স উৎপাদনে আয় হবে ২৬ লাখ কোটি টাকা, যেখানে মোবাইল ফোন থেকেই আসবে ১৩ লক্ষ কোটি টাকা।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে PLI তৈরি হয়েছে ভারতের স্বনির্ভরতা ও ব্যবসায়িক স্বাচ্ছন্দ্যকে বৃদ্ধি করার জন্য। যাতে বিকল্প উৎপাদন গন্তব্য হিসাবে ভারতকে তুলে ধরা যায়। সরকার দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থার ১৬টি প্রস্তাবকে ছাড়পত্র দিয়েছে৷ ১১হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হবে পি এল আই প্রকল্পে।

এই প্রকল্পের অধীনে আগামী ৫ বছরে ১০.৫ লাখ টাকার মোবাইল ফোন তৈরি হবে৷ এই সংস্থাগুলির মধ্যে আছে আইফোন প্রস্তুতকারক অ্যাপেলের কন্ট্রাক্ট উৎপাদক Foxconn Hon Hai, Wistron, Pegatron, এছাড়াও Samsung এবং Rising Star ৷ এবং দেশীয় সংস্থা গুলির মধ্যে আছে Lava, Bhagwati (Micromax), Padget Electronics (Dixon Technologies), UTL Neolyncs ও Optiemus…