দেশনতুন খবরবিশেষ

মোদি সরকারের আমলেই প্রকাশিত করা হল দেশের নতুন নকশা, নতুন রূপে দেখা যাচ্ছে জম্মু- কাশ্মীর- লাদাখকে

ভারত সরকার জম্মু-কাশ্মীর থেকে অনুচ্ছেদ 370 কে তুলে নেওয়ার পর থেকে জম্মু-কাশ্মীর, লাদাখ এখন কেন্দ্র শাসিত রাজ্যে পরিণত হয়েছে। আর এই ঘটনা ক্রমে গতকাল কেন্দ্রীয় মোদি সরকারের তরফ থেকে ভারতের নতুন নকশা জারি করা হলো।ভারত সরকার দ্বারা জারি করা এই নতুন নকশা তে রয়েছে লাদাখ কেন্দ্রশাসিত রাজ্যে দুটি জেলা। যার মধ্যে একটির নাম কারগিল আর আরেকটির নাম লেহ। আর অন্যদিকে জম্মু-কাশ্মীর রাজ্যের বাকি অংশ জম্মু- কাশ্মীর কেন্দ্র শাসিত রাজ্যের অধীনে পড়েছে।

এই কথা আরো একবার আপনাদের মনে করে দিই জম্মু- কাশ্মীর রাজ্যে ভারতের স্বাধীনতার সময় ছিল 14 টি জেলা। যে জেলাগুলির নাম ছিল কাঠুয়া, উধমপুর, অনন্তনাগ, বারামুলা, রিয়াসি, মুজফরাবাদ, মীরপুর, পুঞ্ছ, লেহ, লাদাখ, গিলগিট, চিলহাস, গিলগিট বজারত আর ট্রাইবাল টেরিটরি। তবে 2019 আসতে না আসতেই জম্মু-কাশ্মীরের রাজ্য সরকার এই 14 টি জেলাকে পুনর্গঠিত করে 28 টি জেলা তে পরিণত করেছিল নতুন জেলাগুলির নাম দেওয়া হয়েছিল কুপওয়ারা, গন্ডেরবল, বান্দিপোরা, বদ্গাম, শ্রীনগর, কুলগাম, শোপিয়া, রাজৌরি, ডোডা, কিশতবার, রামবন, কারগিল আর সাম্বা।

 

তবে এবার মোদি সরকারের আমলে কাশ্মীর পুনর্গঠন নিয়ম অনুযায়ী 2019 সালেই লাদাখ এখন কেন্দ্রশাসিত রাজ্য পরিণত হয়েছে। এই রাজ্যে রয়েছে মাত্র দুটি জেলা যে গুলির নাম যথাক্রমে লেহ আর লাদাখ। যার দরুন Surveyor General Of India এর তরফ থেকে 31 শে অক্টোবর 2019 সালে একটি  নতুন করে তৈরি হওয়ায় কেন্দ্রশাসিত রাজ্য জম্মু-কাশ্মীর, লাদাখ এর নতুন মানচিত্র প্রকাশ করা হয়।গত 5 ই আগস্ট 2019 সালে কেন্দ্র সরকার এক ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নিয়েছিল যেখানে কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে জম্মু কাশ্মীর থেকে ভারতীয় সংবিধানের 370 ধারা তুলে দেওয়া হয়।আর এরপরই জম্মু-কাশ্মীর রাজ্যের পুনর্গঠন আইন অনুযায়ী 2019 এর 31 অক্টোবর থেকে রাজ্যের জায়গায় কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসাবে অস্তিত্ব চলে আসে এই জম্মু-কাশ্মীর রাজ্য।

 

Related Articles

Back to top button