ভারতের হাতে আস্তে চলছে ধ্বংসাত্মক রিপার ড্রোন রাডারে ধরা না পড়ে যেকোনো জায়গায় ধ্বংসলীলা চালাতে পারবে এই ড্রোন…

আগামী কয়েক মাসের মধ্যে ভারতের এক নতুন অদৃশ্য কাল আসতে চলেছে যেটা দেখে পাকিস্তান সহ অন্যান্য ভারতের শত্রু দেশগুলির মধ্যে বসে থাকা জঙ্গিরা পর্যন্ত কেঁপে উঠবে। ভারতের এই নতুন অদৃশ্য কালের নাম দেওয়া হচ্ছে MQ 9 রিপার ড্রন।আপাতত আমেরিকার কাছে রয়েছে এই খাতারনাক ড্রন যেটিকে ভারত নিজেদের হাতে করতে চাইছে এই মাসে যখন আমেরিকার রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প ভারতে আসছেন তখন এই নিয়ে দুই দেশের মধ্যে আলোচনা হতে পারে এমনটাই খবর সূত্রে জানতে পারা যাচ্ছে।

আর এই ড্রোনের ক্ষমতা যে কতখানি তা যদি ব্যাখ্যা করতে হয় তাহলে বলা যেতে পারে এই ড্রোনের দ্বারা এক পলকের মধ্যেই যেকোনো শত্রুপক্ষকে ধ্বংস হয়ে যাবে। যদি এই ড্রোনের আকার বলা যায় তাহলে এই আনম্যান কমব্যাট এরিয়েল ভেরিকেল টি একটি ছোট বিমানের মত দেখতে। তবে এর শক্তি অনেকখানি ধ্বংসাত্মক। এক পক্ষে এই ড্রোন শত্রুদের জন্য কাল বলা যেতে পারে। আরে ড্রোনের মাধ্যমে যে শুধুমাত্র শত্রুদের উপর নজরদারি রাখা যাবে তাই নয়, এটিকে একটি লড়াকু বিমান হিসাবেও ব্যবহার করা যাবে।

আপাতত এই কমব্যাট ড্রোনটিকে ব্যবহার করে আমেরিকা। আর শুধু নাম শুনেই বোঝা যাচ্ছে এটি একটি ড্রোন তাই এটি চালাতে কোন প্রকার পাইলটের দরকার পড়বে না। এটি একটি সম্পূর্ণ রিমোট সঞ্চালিত ড্রোন।যার ফলে এই ড্রোন ব্যবহার করলে শত্রুদের আস্তানায় যেতে হবে না জওয়ানদের এবং এই ড্রোনের মাধ্যমে সেসব শত্রুদের ধ্বংস করা সক্ষম হবে। সাথে সাথে এই ড্রোনের আরো একটি বিশেষ গুণ রয়েছে যেটি হল কোন প্রকার আওয়াজ না করে শত্রুপক্ষকে এই ড্রোনের দ্বারা উড়িয়ে দেওয়া সক্ষম।

আর এই ড্রোনটিকে কয়েক শ’ কিলোমিটার দূর থেকে অপারেট করা সম্ভব ফলে অনেক কম সময়ের মধ্যে দ্রুত গতিতে এই ড্রোন নিশানা ভেদ করতে সক্ষম। আর এই ড্রোনের আরও একটি বিশেষত্ব হল এই ড্রনটি শুধুমাত্র নিজের নিশানায় ধ্বংসলীলা চালায় আর আশেপাশে এই ড্রোনের দরুন ক্ষয়ক্ষতি কম হয়। আর আরো একটি বিশেষত্ব হলো এই ড্রোনটির যেটি হল এই ড্রোনটি শত্রুদের রেডারও ধরা পড়ে না।

Related Articles

Close