উন্নতির সিঁড়িতে আরো একধাপ এগাচ্ছে ভারত, দেশে প্রথম চালু হচ্ছে AC Railway Station

ভারতবর্ষে সর্বপ্রথম ব্যাঙ্গালুরুতে শুরু হতে চলেছে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত রেলওয়ে টার্মিনাল। এই বিষয়ে শনিবার ১৩ মার্চ কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল (Piyush Goyel) তাঁর ট্যুইটার অ্যাকাউন্টে ট্যুইট করে জানালেন।

কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল (Piyush Goyel) তাঁর ট্যুইটার অ্যাকাউন্টে লিখেছেন, “শীর্ষস্থানীয় সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদের একজন, ভারতরত্ন স্যার এম বিশ্বেশ্বরয়ের নাম অনুসারে, দ্রুত বেঙ্গালুরুতে দেশের প্রথম সেন্ট্রালাইজড এসি রেল টার্মিনাল চালু হতে চলেছে।”

বেঙ্গালুরু থেকে আরো বিভিন্ন স্থানে যাতায়াতের জন্য বেশ কয়েকটি এক্সপ্রেস ট্রেন চালু করার জন্য শহরের বিপ্পানাহল্লিতে (Baiyappanahalli) নতুন কোচ টার্মিনালটির পরিকল্পনা করা হয়েছিল। পশ্চিম রেলওয়ের চিফ পাবলিক রিলেশন অফিসার জানিয়েছেন, “বিপ্পানাহল্লি ২০১৫-১৬ সালে অনুমোদিত তৃতীয় কোচ টার্মিনাল, যা ভারতরত্ন স্যার এম বিশ্বেশ্বরয়ের (Sir M Visvesvaraya) নামানুসারে নামকরণ করা হয়েছিল। যিনি একজন ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন এবং দেশ গঠনে বিশেষ অবদান রেখেছিলেন।”

৩১৪ কোটি টাকা ব্যায় হয়েছিল এই রেলওয়ে টার্মিনালটি বানানোর জন্য। ফেব্রুয়ারি থেকেই এটি চালু হওয়ার কথা ছিল কিন্তু কোনো এক কারণবশত এটি অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়। এই টার্মিনালটি চালু হয়ে গেলে বেঙ্গালুরু থেকে মুম্বই ও চেন্নাইয়ের মতো অন্যান্য শহরের সঙ্গে খুব সহজেই যুক্ত করা যাবে। যাত্রীদের সমস্ত রকম সুবিধাগুলি সরবরাহ করার জন্য এই টার্মিনালটিকে তৈরি করা হচ্ছে।

এই টার্মিনালটি ৪২০০ বর্গমিটার এলাকায় তৈরি করা হয়েছে। প্রতিদিন এই টারর্মিনাল দিয়ে ৫০,০০০ লোক যাতায়াত করতে পারবে। টার্মিনালে আটটি স্ট্যাবিলিং লাইন এবং তিনটি পিট লাইন ছাড়াও সাতটি প্ল্যাটফর্ম রয়েছে প্রতিদিন যাতে টার্মিনালটিতে ৫০ টি ট্রেন চলাচল করতে পারে।

এক রেলওয়ে আধিকারিক জানিয়েছেন এই টার্মিনালটি সম্পূর্ণ শীত তাপ নিয়ন্ত্রিত। ৯০০ টি দু-চাকা এবং চার চাকার যানবাহন পার্কিং-এর ব্যবস্থা রয়েছে। উচ্চ-শ্রেণীর ওয়েটিং হল এবং রিজার্ভড (ভিআইপি) লাউঞ্জ, ফুড কোর্ট, এসকেলেটরের সুব্যবস্থা রয়েছে।