ভারত করে দিল এমন কাজ যা সমগ্র বিশ্বও করতে পারেনি। ইতিহাসের পাতায় নাম লেখালো ভারত…

আমাদের ভারত বর্ষ দিনদিন সফলতার শিখরে উঠে চলেছে , টেকনোলজির দিক থেকে ভারতের নাম এখন সারা বিশ্বের কাছে চর্চার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।ভারত যে বড়ো সফলতাই পৌঁছেছে আজ আমরা সেই বিষয় নিয়েই আলোচনা করবো। এই পৃথিবীতে এমন অনেক জিনিস রয়েছে যা সাধারণ মানুষের পক্ষে সম্ভব নয় কিন্তু তা সত্ত্বেও ভারতের বৈজ্ঞানিকরা নিজেদের প্রচেষ্টা চালিয়ে গেছেন এবং সেইসব পরীক্ষা নিরীক্ষা গুলোতে তারা সফলও হয়েছেন ।আমাদের দেশের বৈজ্ঞানিকরা অন্যান্য বৈজ্ঞানিকের চেয়ে কোনো অংশে কম নই, কিন্তু আজ প্রথমবার ভারতের বৈজ্ঞানিকরা এমন কিছু করে দেখিয়েছেন যেটা করার জন্য সাধারণ মানুষ শুধু স্বপ্নই দেখে ।

ভারতের বৈজ্ঞানিকেরা একটি অদ্ভুত খোজ করেছেন , সেই সম্মন্ধে আপনারা অবশ্যই শোনেননি।আজ আমরা আপনাদের জানাবো ভারত যে আশ্চর্য আবিষ্কার করেছে , যেমন কিছু সময় আগেই আলোকবর্ষের পর্যবেক্ষণে ভারত একটি অনেক বড়ো সফলতা লাভ করেছে ।
যেখানে ভারত চন্দ্রযানে গিয়ে চাঁদে জলের খোজ করে নিয়েছে এবং এবার থেকে চাঁদে যারা বাস করতে যাবে তারা জলের সুবিধা অবশ্যই পাবে আর এটি ভারতের জন্য অনেক বড়ো সফলতা।আপনাদের জানিয়ে দিই যে, ভারতের আরেকটা চন্দ্রযান যেটা চন্দ্রের পরিক্রমা করছিল তারা চাঁদে বরফের টুকরোর খুঁজে পেয়েছে।যেটাতে এই সংকেত ও পাওয়া যাচ্ছে যে ,চন্দ্রমাতেও জলের উপস্থিতি রয়েছে।

চন্দ্রিমা এর সবচেয়ে বড়ো অ্যাকাডেমি নাসাও এই কথা মেনেছে এবং এই কথাটি সর্বা গ্রহণও করেছে।
প্রযুক্তিগত দিক দিয়ে শিখরে থাকা নাসা ভারতীয় বিজ্ঞানীদের এই সফলতার জন্য তাদের সদর আমন্ত্রণও জানালেন । নাসা এর সম্মন্ধে প্রশংসা করে বলল ,”মানব ইতিহাসের এটি সবচেয়ে বড়ো খোঁজ। ভারতীয় বৈজ্ঞানিকেরা তাদের এই খোঁজে অনেক উৎসাহিত এবং আনন্দিত। এই সফলতার কারণে ভারতের বুক গর্বের সহিত উঁচু হয়েছে। এই অসাধারণ কাজের জন্য ভারতীয় বিজ্ঞানীদের অসীম শুভেচ্ছা”।

আরো এরকম নতুন নতুন খবরের আপডেট পেতে চোখ রাখুন আমাদের ওয়েব পোর্টালটিতে।

Related Articles

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Close