ভারতে পেট্রোলের উপর নির্ভরতা কমাতে গাড়ি নির্মাতাদের বড়সড় নির্দেশ, নতুন বছর থেকেই মিলবে সুফল

কেন্দ্র সরকার পেট্রোল এবং ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধি কিছুটা কমিয়ে দিলেও অনেক রাজ্যে এখনও সেই পথে হাঁটা শুরু করেনি। পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম নিয়ে রাজনৈতিক তরজা আজও অব্যাহত। বিজেপি বিরোধী রাজ্যগুলি কিছুতেই পেট্রোল এবং ডিজেলের উপর থেকে শুল্ক কমাতে চাইছে না ফলে সাধারণ মানুষের দুর্ভোগ আরো বেশি বেড়ে যাচ্ছে। তবে এবার এই মুশকিল আসান করে দিলেন সড়ক পরিবহন এবং মহাসড়ক মন্ত্রী নীতিন গড়করি।

সোমবার একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে তিনি বলেন, আমরা আগামী কিছুদিনের মধ্যেই এমন একটি ফাইলে স্বাক্ষর করতে চলেছি, যেখানে বায়ো ইথানলে চালিত ইঞ্জিন তৈরি করার জন্য অনুমোদন দেওয়া হবে। এই ব্যবস্থার ফলে ইথানলের চাহিদা আরো কিছু গুণ বেড়ে যাবে এবং পেট্রোল-ডিজেলের বাড়তি দাম থেকে মুক্ত হবে সাধারণ মানুষ।

বর্তমান সময়ে ভারতবর্ষের মধ্যে শুধুমাত্র পুনেতে এমন ৩ টি ইথানল স্টেশন রয়েছে। পুনেতে পাইলট প্রকল্পের অধীনে কিছু ইথানল জ্বালানি ভিত্তিক গাড়ি চালানো হচ্ছে। অদূর ভবিষ্যতে যাতে এই ব্যবস্থা আরও বেশি বাড়ানো যায় তার জন্য চেষ্টা চালানো হচ্ছে। চলতি বছর ৫ জুন ৩ টি ১০০ ইথানল dispensing স্টেশন চালু করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

বিশ্বের মধ্যে ব্রাজিল( brazil) ৪০ বছর আগে থেকেই ইথানল দিয়ে কাজ শুরু করে দিয়েছে কারণ ব্রাজিলের সব থেকে বেশি উৎপাদন হয় বড় আখ, ফলে বেশি পাওয়া যায় ইথানল। এবার সেই পদ্ধতি প্রয়োগ করার পরিকল্পনা গ্রহণ করতে চলেছে ভারত সরকার। মনে করা হচ্ছে,এর ফলে সাধারণ মানুষের পেট্রোল-ডিজেলের প্রতি হাহাকার অনেকটাই কমে যাবে