বিশ্বের সবচেয়ে বেশি করোনা সংক্রমিত 10 টি দেশের তালিকায় ঢুকে পড়লো ভারতের নাম, এবার দেশজুড়ে ক্রমশ ঘনীভূত হচ্ছে করোনার দাপট..

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ আটকানোর জন্য দেশ জুড়ে চতুর্থ দফার লকডাউন ঘোষণা করেন কেন্দ্রীয় সরকার। আর এখন চতুর্থ দফার লকডাউনও প্রায় শেষ হতে চলেছে কিন্তু এখনো পর্যন্ত করোনা সংক্রমণ আটকানো যাচ্ছে না কোনো মতেই।প্রতিদিনই কিছু না কিছু নতুন রেকর্ড করে চলেছে এই মরণ ভাইরাস। সারাদেশের মানুষ অনেক আশা ছিল যে এই করোনাভাইরাস এর ফলে প্রচুর পরিমাণে আর্থিক ক্ষতি হলেও আমরা ঠিক জয়লাভ করবো কিছুদিনের মধ্যেই। কিন্তু করোনা ভাইরাস যেভাবে থাবা বসাতে শুরু করে দিয়েছে তাতে এই আশা কবে পূরণ হবে তার কোন ঠিক নেই।

করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে তেমনি সুস্থ হওয়ার সংখ্যাও বাড়ছে আমাদের দেশে। এই ভাবে করোনা সংক্রমণ বেড়ে চলায় রবিবার ভারত বিশ্বের সবথেকে বেশি করোনা সংক্রমিত দশটি দেশের মধ্যে ঢুকে পড়ল। রবিবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে একটি রিপোর্ট পেশ করা হয়। এই রিপোর্টে বলা হয়েছে ভারতের নতুন করে 6767 জনের শরীরে করোনা ভাইরাস দেখা গেছে। এর পরেই ভারত সব থেকে বেশি করোনা সংক্রমিত দশটি দেশের মধ্যে ঢুকে পড়ে। রিপোর্ট অনুসারে বর্তমানে ভারতে মোট করোনা সংক্রামিতদের সংখ্যা এক লক্ষ 38 হাজার 845 জন।

বর্তমানে যা দেখা যাচ্ছে তাতে 13 দিন পর পর করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দ্বিগুণ হচ্ছে। আজ থেকে 15 দিন আগে ব্রাজিলের ও ঠিক ভারতের মতোই অবস্থা ছিল। এরপর ব্রাজিলে হঠাৎ করে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এক লাফে বেড়ে যায়। বর্তমানে ব্রাজিলের করোনা আক্রান্তের সংখ্যা 3 লক্ষ 47 হাজার 398 জন। রিপোর্ট অনুসারে ভারতের সংক্রমনের সংখ্যা 10,000 হতে সময় লেগেছিল 43 দিন। আর গত দু’দিনের মধ্যেই এই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় 13,000। বর্তমানে ভারতের করোনা সংক্রমণ দ্বিগুণ হওয়ার সময় মাএ 13.1 দিন।

তবে বিশেষজ্ঞরা বারবার জানিয়ে দিয়েছেন যে, ভারতে করোনা সংক্রমণ এখনো পর্যন্ত চরম পর্যায়ে পৌছায়নি। তাই ভারতীয়দের এই মুহূর্তে খুব সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে নইলে আগামী দিনে অনেক বড় বিপদের সম্মুখীন হবে মানবজাতির। তাই এ ব্যাপারে অবহেলা করার কোন প্রশ্নই উঠছে না।করোনা সংক্রমনের দিক থেকে ভারত রয়েছে 10 নম্বরে। 25 শে মে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার রিপোর্ট অনুসারে, করোনা সংক্রমনের দিক থেকে সবথেকে প্রথমে রয়েছে আমেরিকা এখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা 15 লক্ষ 92 হাজার 599 জন।

এরপরে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে রাশিয়া, এখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা 3 লক্ষ 53 হাজার 427 জন। তৃতীয় স্থানে রয়েছে ব্রাজিল, মোট আক্রান্তের সংখ্যা 3 লক্ষ 47 হাজার 398 জন। চতুর্থ স্থানে রয়েছে ইউনাইটেড কিংডম, এখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা 2 লক্ষ 59 হাজার 563 জন। পঞ্চম স্থানে রয়েছে স্পেন, মোট আক্রান্তের সংখ্যা 2 লক্ষ 35 হাজার 772 জন।এরপর ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে ইতালি, এখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা 2 লক্ষ 29 হাজার 858 জন।

একসময় সবথেকে উপরে ছিল ইতালি ও স্পেনে কিন্তু তারা এখন বর্তমানে করোনাভাইরাস এর ওপর অনেকটাই কন্ট্রোল করে নিয়েছে। এক্ষেত্রে জার্মানি সপ্তম স্থানে রয়েছে, এখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা 1 লক্ষ 78 হাজার 570 জন। অষ্টম স্থানে রয়েছে তুর্কি, মোট আক্রান্তের সংখ্যা হল 1 লক্ষ 56 হাজার 827 জন। নবম স্থান অধিকার করে রয়েছে ফ্রান্স, ফ্রান্সে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে 1 লক্ষ 42 হাজার 204 জন। আর দশম স্থান অধিকার করে রয়েছে ভারত, এখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা 1 লক্ষ 38 হাজার 845 জন।

Related Articles

Close