মোদী সরকারের আমলেই ব্যবসায় সুবিধাজনক দেশ হিসাবে আরও 14 তম ধাপ এগিয়ে এল ভারতের নাম

একথা কারও জানতে বাকি নেই যে ভারতের অর্থনৈতিক বিকাশ এখন উদ্বেগজনক হারে কমছে তবে এখন এরই মধ্যে ভারতের পক্ষেই এক আশার কথা শোনালো বিশ্ব ব্যাংক। প্রতিবছরের ন্যায় বিশ্বব্যাঙ্ক একটি তালিকা তৈরি করে যেখানে তারা জানায় কোন কোন দেশ ব্যবসার পক্ষে কতদূর সুবিধাজনক। তাদের এই তালিকার নাম দেওয়া হয়েছে “ডুইং বিজনেস”। বিশ্বব্যাংকের তরফ থেকে এখন যে খবরটি বেরিয়ে আসছে সেখানে শোনা যাচ্ছে যে ব্যবসার জন্য সুবিধাজনক দেশ হিসেবে আন্তর্জাতিক মহলে আগের তুলনায় গ্রহণযোগ্যতা বেশী বেড়েছে ভারতের।

এই তালিকায় দেখা যাচ্ছে চলিত 14 বছরের ধাপে উঠে এসেছে ভারতের নাম। আর এখন যে দেশগুলি ব্যবসার জন্য সবচেয়ে সুবিধাজনক তার মধ্যে রয়েছে ভারতের অবস্থান 63 নম্বরে। তবে আরো বলে রাখি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মেক ইন ইন্ডিয়া ও আরও কয়েকটি প্রকল্পের জন্যই বর্তমানে ভারতে বিনিয়োগকারীদের সংখ্যা ক্রমশ বৃদ্ধি পেয়েছে। সাথে সাথে এও বলে রাখি 2014 সালের মোদি সরকার যখন ক্ষমতায় আসেন তখন ব্যবসার জন্য সুবিধাজনক 190 টি রাষ্ট্র তালিকার মধ্যে ভারতের অবস্থান ছিল 142 নম্বরে।

2017 সালে ভারতের অবস্থান যা কমে দাঁড়ায় 130 নম্বরে। শুধু তাই নয় সেই সময়ে ইরান ও উগান্ডার মতো দেশ ও ভারতের চেয়ে ভালো অবস্থানে ছিল। তবে পরবর্তী কালে 2018 সালে ভারতের নাম উঠে আসে 100 নম্বরের মধ্যে। পরে ধীরে ধীরে ভারতের নাম উঠে আসতে থাকে 77 নম্বরে তারপর এবার প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী ভারতে নাম একেবারে উঠে এলো 63 নম্বরে।শুধু তাই নয় এই ডুইং বিজনেস রিপোর্ট অনুযায়ী ভারতের অর্থনৈতিক সংস্কারের অনেক প্রশংসা করা হয়েছে তাতে বলা হয়েছে এই নিয়ে পরপর তিন বছর ভারত ভালো ফলাফল প্রদর্শন করে চলেছে।

এই সময়ের মধ্যে অন্যান্য দেশ কিছু কিছু সংস্কার করেছে কিন্তু ভারত ও তাদের তুলনায় তা নেহাত কম নয়। তবে এখন ভারত বাদে এই তালিকায় ওপরে উঠে রয়েছে সৌদি আরব, জর্ডান, টোগো, বাহরিন, তাজিকিস্তান, কুয়েত, পাকিস্তান, চীন ও নাইজেরিয়ার নাম। বিশ্বব্যাংকের প্রকাশিত এই রিপোর্টের পর নীতি আয়োগ এর সিইও অমিতাভ কান্ত কে টুইট করতে দেখা যায় এবং সেই টুইটে তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে ভারতের এই ফলাফলের জন্য অনেক স্বাগত জানান। তবে এখন রিজার্ভ ব্যাংক, বিশ্বব্যাংক এবং আইএমএফ সম্প্রতি জানিয়েছে চলতি আর্থিক বছরে ভারতের অর্থনৈতিক বিকাশ যতদূর ভাবা হয়েছিল তা হচ্ছে না।

এমন এক পরিস্থিতিতে ব্যবসার পক্ষে সুবিধাজনক দেশের নাম হিসাবে ভারতের নাম উপরে উঠে আসা যেটাকে বর্তমান মোদী সরকারের বিশেষ কৃতিত্ব বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষকরা।