কেন্দ্র সরকারের দুর্দান্ত স্কীমে এখন মাত্র 210 টাকা করে জমালেই প্রতিমাসে মিলবে 5000 টাকা করে পেনশন

দীন দরিদ্র মানুষের কথা মাথায় রেখে কেন্দ্র সরকারের অভিনব সৃষ্টি হল অটল পেনশন যোজনা। এই পেনশনের মাধ্যমে ভবিষ্যতে সঞ্চয় অনেকটাই সুরক্ষিত থাকবে। এই পেনশন যোজনার মাধ্যমে আপনাকে প্রতিমাসে ২১০ টাকা করে জমা করতে হবে। আর তার বিনিময়ে আপনি পাবেন ৫০০০ টাকার পেনশন। কেন্দ্রীয় সরকারের এই স্কিমের মাধ্যমে মধ্যবিত্ত মানুষদের সুরাহা হবে।

১ হাজার থেকে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত এই প্রকল্পের মাধ্যমে পেনশন পেতে পারেন গ্রাহকরা। গ্রাহকের বয়স যখন ৬০ বছর হবে তখন কেন্দ্র সরকার এই পেনশন কি প্রতি মাসে দেবে। এই পেনশন প্রাপকের যদি হঠাৎ মৃত্যু হয় তবে এই পেনশন পাবেন সেই ব্যক্তির স্বামী বা স্ত্রী। এছাড়া যদি দেখা যায় যে গ্রাহকরা দুজনই মারা গেলেন তবে নমিনিকে পুরো টাকাটা দেওয়া হবে।

স্কিমের আওতায় প্রতিমাসে ১০০০, ২০০০, ৩০০০, ৪০০০, ৫০০০ টাকা পর্যন্ত পেনশন পেতে পারেন গ্রাহকরা। কোনো ব্যক্তি যদি দিনে ১০ টাকা করে সাশ্রয় করে এই প্রকল্পে জমান তাহলে ব্যক্তিটির যখন ৬০ বছর বয়স হবে, তখন মাসে ৫০০০ টাকা করে অর্থাৎ বছরে ৬০ হাজার টাকার পেনশন পেতে পারেন।

করোনাকালে এই যোজনার টাকা জমা নেওয়া বন্ধ রাখা হয়েছিল ৩০ জুন পর্যন্ত। তবে বর্তমান নিয়ম অনুযায়ী এপ্রিল থেকে আগস্ট মাস পর্যন্ত এই যোজনার জন্য কারোর টাকা জমা দিতে বাকি থাকলে তা ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে অ্যাকাউন্ট থেকে কেটে নেওয়া হযবে। এর জন্য কোনো পেনাল্টি চার্জ দিতে হবে না।

প্রতিদিন যদি সাত টাকা করে জমা করা হয় তাহলে মাসের শেষে অনায়াসেই ২১০ টাকা জমে যাবে। আর ২১০ টাকা করে প্রতিমাসে জমালে ব্যক্তিটির ৬০ বছর বয়স হলে মাসে ৫০০০ টাকা পর্যন্ত পেনশন পাওয়া যেতে পারে।

ইতিমধ্যে ভারতের প্রায় দুই কোটির বেশি মানুষ এই প্রকল্পের মাধ্যমে নাম নথিভুক্ত করেছেন। এই পেনশনের সুবিধা পেতে গেলে গ্রাহকদের ব্যাংক কিংবা পোস্ট অফিসে অবশ্যই সেভিংস অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে। একজন সদস্য একের অধিক অ্যাকাউন্ট এই প্রকল্পের মাধ্যমে খুলতে পারবেন না। এই প্রকল্পে নথিভূক্ত হলে ট্যাক্সের ছাড় পাওয়া যাবে।