আর কয়েক ঘন্টার মধ্যেই বাংলা সহ একাধিক রাজ্যে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা, কয়েকটি জায়গাতে রয়েছে বন্যার আশঙ্কাও

আজ সকাল থেকে রৌদ্রোজ্জ্বল আকাশ দেখা গেলেও আবহাওয়া অফিসের খবর অনুযায়ী হিমালয়ের পাদদেশ সংলগ্ন বাংলার একাংশ সহ উত্তর পূর্ব ভারতের একাধিক রাজ্যে প্রবল বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এর পাশাপাশি ভারতবর্ষের বিভিন্ন অংশে ১৪ থেকে ১৫ আগস্টের মধ্যে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর।

এর পাশাপাশি পশ্চিমবাংলা, বিহার, অসম, মেঘালয়ে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। রাজ্যের বিভিন্ন জেলাতেও বর্ষণের আশঙ্কা করেছে আবহাওয়া দপ্তর। একনজরে দেখা যাক, বাংলার কোন কোন জেলায় আজ প্রবল বর্ষণের সম্ভাবনা থাকছে।

উত্তরবঙ্গের আবহাওয়ার পূর্বাভাস—

১৪ আগস্ট উত্তরবঙ্গের জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার এবং কোচবিহার জেলার কোনো কোনো স্থানে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এর পাশাপাশি দক্ষিণ দিনাজপুর, মালদা, হিমালয়ের পাদদেশ সংলগ্ন দার্জিলিং জলপাইগুড়ি কালিংপং এ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

দক্ষিণবঙ্গের আবহাওয়ার পূর্বাভাস–

১৫ ই আগস্ট পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই। তবে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন এলাকায় হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত এবং সাথে বজ্রবিদ্যুৎ এর সম্ভাবনা রয়েছে।

কোথায় কোথায় বৃষ্টি হবার সম্ভাবনা রয়েছে–

উত্তর পূর্ব ভারত, পূর্ব ও মধ্য ভারতে প্রবল বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। আগামী ১৫ আগস্ট স্বাধীনতা দিবসের দিন এই স্থানগুলিতে ব্যাপকহারে বর্ষণের সম্ভাবনার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। এর পাশাপাশি ভারতবর্ষের বিভিন্ন জায়গায় পাঁচ দিন ধরে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। হিমালয় সংলগ্ন পশ্চিমবঙ্গ, বিহার, সিকিমে আগামী ১৫ অগাস্ট পর্যন্ত প্রবল বর্ষণ হতে পারে।

কয়েকদিন থেকে উত্তরবঙ্গের মহানন্দা, ফুলহার, গঙ্গার জল বাড়তে থাকে। এরই মাঝে প্রবল বর্ষণের ফলে মালদা জেলার ত্রিশটি গ্রামে বন্যা দেখা দিয়েছে। মালদার মানিচক থেকে রতুয়ার ব্লকগুলি জলের তলায়। প্রায় ৫০০টি পরিবার এর জেরে বিপদগ্রস্ত হয়ে পড়েছে।

উত্তর প্রদেশ ও বিহারের বন্যা পরিস্থিতি—

প্রবল বর্ষণের জেরে উওর প্রদেশের ২৪ টি জেলা ৬০০টি গ্রাম বন্যার কবলে পড়েছে। সেখানকার মানুষের মধ্যেই ত্রাণ পৌঁছে দেওয়া এবং বর্ষাকালীন বিভিন্ন অসুখ থেকে মানুষকে নিরাপদ রাখার কাজে হাত বাড়িয়েছে উত্তরপ্রদেশের যোগী শাসক দলের লোকেরা।

উত্তর ও দক্ষিণ বঙ্গের বিভিন্ন শহরের তাপমাত্রা–

বর্ধমান ৩৬.০

দার্জিলিং ২১.২

ডায়মন্ডহারবার৩৩.০

কালিম্পং ২৭.০

মেদিনীপুর ৩৪.০

কৃষ্ণনগর ৩৫.২

পুরুলিয়া ৩৩.৩

শ্রীনিকেতন ৩৩.৪

উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা( ডিগ্রি সেলসিয়াস)—

আসানসোল ৩৪.৫

বালুরঘাট ৩১.৬

বাঁকুড়া ৩৪.৪

বহরমপুর ৩৩.৬

কোচবিহার ৩৩.৪

আবহাওয়া অফিস থেকে জানিয়েছেন যে মৌসুমী অক্ষরেখার বিস্তার হিমালয়ের পাদদেশ থেকে গোরখপুর মোজাফফর নগর, শান্তিনিকেতন, হলদিয়া হয়ে দক্ষিণ-পূর্ব থেকে বঙ্গোপসাগর, উত্তর-পূর্ব দিকে রয়েছে আর এরই জেরে বঙ্গোপসাগর থেকে প্রচুর জলীয় বাষ্প প্রবেশ করছে স্থলভাগে। এর ফলে পশ্চিম বাংলার বিভিন্ন এলাকায় ১৫ ই আগস্ট ভারী বর্ষণের সর্তকতা রয়েছে।