আর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই রাজ্যে আছড়ে পড়বে সাইক্লোন গুলাব, বজ্রবিদ্যুৎ সহ প্রবল বৃষ্টিতে ভিজে চলেছে কলকাতা সহ একাধিক জেলা

ক্রমেই ভারতের পূর্ব উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় গুলাব। প্রাথমিকভাবে আবহাওয়া দপ্তর এর মতে এই ঘূর্ণিঝড় আজ অন্ধ্রপ্রদেশের বিশাখাপত্তনম এবং ওড়িশার গোপালপুরের উপরদিয়ে স্থলভাগের প্রবেশ করবে। সাইক্লোন গুলাব এর জেরে পশ্চিমবঙ্গ সহ একাধিক রাজ্যে হবে ভারী বৃষ্টি।কলকাতা সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গে সোমবার বিকাল থেকে আবহাওয়ার পরিবর্তন হতে শুরু করবে। বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। মঙ্গলবার সকাল থেকে আবহাওয়ার আরো অবনতি হবে বলে মনে করছে আবহাওয়া দপ্তর। কার্যত গুলাবের জেরে বজ্রবিদ্যুৎ সহ প্রবল বর্ষণে ভাসতে চলেছে গোটা দক্ষিণবঙ্গ।

এই দিন সোমবার সকাল থেকেই দক্ষিণবঙ্গের কিছু কিছু জেলায় বৃষ্টি শুরু হয়ে গেছে। এই বছরের শুরুতেই একের পর এক আসা ঘূর্ণিঝড়ের ফলে কার্যত বিপর্যস্ত উপকূলবর্তী এলাকার মানুষজন। ইয়াসের ধ্বংসলীলার প্রভাব কাটতে না কাটতেই দোরগোড়ায় এসে হাজির গুলাব। গুলাব এর উৎপত্তিস্থল মায়ানমার। আবহাওয়া দপ্তর এর তরফ থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টায় কলকাতা ,পূর্ব এবং পশ্চিম মেদিনীপুর , পূর্ব এবং পশ্চিম বর্ধমান, দুই পরগনা, হাওড়া ,হুগলি, ঝাড়গ্রাম ,বাঁকুড়ার বিভিন্ন অঞ্চলে প্রবল ভারী বর্ষণের সম্ভাবনার কথা বলা হয়েছে।

সোমবার সকাল থেকেই বিক্ষিপ্তভাবে এই সমস্ত অঞ্চলে বৃষ্টি আরম্ভ হয়ে যাবে। বিকালের পর থেকে বৃষ্টির গতি বেগ বাড়তে থাকবে। মঙ্গলবার সারাদিন ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে । আবহাওয়া সূত্রে পাওয়া খবরে বুধবার পর্যন্ত পশ্চিম বর্ধমান, ঝাড়গ্রাম, বাঁকুড়া এবং পুরুলিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।মূলত অন্ধ্রপ্রদেশ এবং ওড়িশার উপকূলে এই ঘূর্ণিঝড় স্থলভাগের প্রবেশ করবে । যার জেরে সোমবার বিকাল থেকেই এ সমস্ত অঞ্চলে এবং পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ ২৪ পরগনা এবং পূর্ব মেদিনীপুরে বৃষ্টি শুরু হয়ে যাবে।

আবহাওয়া দপ্তর থেকে আগে থেকেই সমুদ্র উপকূলবর্তী এলাকায় মৎস্যজীবীদের সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে । আগামী তিনদিন সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হচ্ছে মৎস্য জীবীদের । এইসময় সমুদ্র চরমপর্যায়ে উত্তর হতে পারে। পশ্চিমবঙ্গের দীঘার সমুদ্র উপকূলে সর্তকতা জারি করা হয়েছে । উপকূল থেকে সরিয়ে নেয়া হচ্ছে পর্যটকদের। এছাড়া গুজরাট এবং রাজ্যের দক্ষিণ অংশে কিছু কিছু এলাকায় আগামী দুদিন বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে এছাড়া সোমবার থেকে হালকা মেঘ এবং বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে দিল্লিতেও।

এছাড়া দক্ষিণ গুজরাট সৌরাষ্ট্র বিভিন্ন অঞ্চল যেমন জামনগর, দেবভূমি, দ্বারকা ইত্যাদি অঞ্চলে ও বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে । এ সমস্ত অঞ্চলে আগামী দুদিন অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া রাজস্থানে ও আগামী তিনদিন ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। রাজ্যের পূর্বভাগে মৌসুমী বায়ু সক্রিয় থাকার ফলে রাজ্যের দক্ষিণভাগ অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন অঞ্চলে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে আগামী কদিন।