আঙ্গুলের ছাপ না মিললে বন্ধ হয়ে যাবে রেশন নেওয়া! বাড়ছে আশঙ্কা…

আমরা সবাই জানি দারিদ্র সীমার ওপরের লোকেদের জন্য সস্তার চাল গম বরাদ্দ করা থাকে না সরকারের তরফ থেকে। তাই দারিদ্র সীমার উপরে যেসব লোকেরা রয়েছেন তাদের যে রেশন কার্ডের ও বেশি প্রয়োজন নেই। এর পরিবর্তে দারিদ্র্যসীমার নিচে থাকা সমস্ত সচ্ছল পরিবারগুলি কে ভর্তুকিহীন ডিজিটাল রেশন কার্ড দেওয়া হবে। যা সরকারি পরিচয় পত্রের ভূমিকা নেওয়ার সাথে সাথে গণবণ্টন বহির্ভূত গেরস্থালির জিনিসপত্র কেনার ক্ষেত্রে কিছুটা ছাড় পাওয়া যাবে।

এই ডিজিটাল রেশন কার্ড এই কারণেই করা হচ্ছে কারণ বহু বছর ধরে বিভিন্ন রাজ্যে এ কথা শোনা যাচ্ছে যে দারিদ্র্যসীমার নিচে যে সব ব্যক্তিরা রয়েছেন তারা এই সরকারের দু টাকা কেজি চালের সুবিধা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। ফলে সে সব লোকেরা রেশন দোকান থেকে 13 টাকা কেজি চাল কিনতে বাধ্য হচ্ছেন। তবে এবার সরকার এসব অভিযোগের গুরুত্ব বুঝে নতুন করে একদফায় ফর্ম ফিলাপ শেষ করেছেন রেশন কার্ডের সাথে আধার কার্ডের সংযুক্তিকরণ।

আবার দ্বিতীয় পর্যায়ের যে ফরম ফিলাপ টি শুরু করা হবে সেটি 5 ই নভেম্বর থেকে। তবে একবার এই রেশন কার্ড বানানো সম্পন্ন হয়ে গেলে আংগুলের ছাপ দিলে তবেই মিলবে রেশন।কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে ডিসেম্বর মাসের মধ্যে আধার সংযুক্তিকরণ এর সময়সীমা কে চূড়ান্ত করে দেওয়া হয়েছে। তারা এবার প্রতিভা রেশন দোকানে রেশন তুলতে যাওয়ার সময় দোকানে গিয়ে দিতে হবে তাদের আঙ্গুলের ছাপ তবে মিলবে তাদের প্রাপ্য রেশন। আর আঙ্গুলের ছাপ যদি না মিলে তাহলে পাওয়া যাবে না রেশন।

রাজ্যে মোটামুটি ভাবে প্রায় সব রেশন দোকানেই ই-পস মেশিন বসানোর কাজ শেষ হয়ে এসেছে। এখন থেকে এই মেশিনের মাধ্যমে করা হবে আধার কার্ড কে সংযুক্ত করন। রেশন গ্ৰাহকদের পরিবারের সমস্ত সদস্যের রেশন কার্ডের সঙ্গে আধার কার্ড নিয়ে যেতে হবে রেশন দোকানে তবে এই কার্য হবে সম্পন্ন। এর প্রথম পর্যায়ে আধার কার্ডের নম্বর দিয়ে আধার সিডিং করাতে হবে, তারপর পর্যায়ক্রমে আঙ্গুলের ছাপ দিয়ে আধার অথেন্টিকেশন করাতে হবে। ব্যাস! তারপরই এবার রেশন দোকানে গিয়ে আঙ্গুল চাপ দিলেই মিলবে পরিবার বা ব্যক্তির রেশনে প্রাপ্ত চাল,গম,আটা।যে দামের জিনিস বরাদ্দ করা হবে ওই গ্ৰাহককে সেই দামেরই রশিদ মেশিন থেকে বেরিয়ে আসবে। তবে এক্ষেত্রে সেই কাগজ তখনই বের হবে যখন আঙ্গুলের ছাপ মিলবে পুরোপুরি। আর আঙ্গুলের ছাপ না মিললে পাওয়া যাবে না রেশন সামগ্রী বলে জানতে পারা গেছে।

Related Articles

Close