অক্সফোর্ড সাফল্য পেলে ভারতের বাজারে দ্রুত আসবে করোনা ভ্যাকসিন

বর্তমানে করোনা ভাইরাস রীতিমতো সারাবিশ্বে সঙ্কট সৃষ্টি করেছে। দিন দিন বেড়েই যাচ্ছে আক্রান্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যা। এই ভাইরাস সংক্রমণ থেকে বাঁচার জন্য একটিমাত্র পথ যা হল লকডাউন পালন করা।গোটা বিশ্বজুড়ে এই মরণ ভাইরাস করোনার জেরে আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে 29 লক্ষেরও বেশি যাদের মধ্যে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু ঘটেছে 2 লাখ 3 হাজার 299 জনের। আর ভারতে ইতিমধ্যে এই ভাইরাসের দরুন আক্রান্ত হয়ে প্রাণ গিয়েছে 852 জনের।

অপরদিকে ভারতে এই মরণ ভাইরাস করোনার জেরে আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছেছে 26496 জন যাদের মধ্যে এখনো পর্যন্ত অ্যাক্টিভ কেস রয়েছে 19618 টি। তাই এখন গোটা বিশ্ব উঠে পড়ে লেগেছে মরন ভাইরাস করোনার ভ্যাকসিন তৈরি করতে, তখন আশার আলো দেখালো এবার পুনের সেরাম ইনস্টিটিউট। এই দিন সেরামের ভারতীয় শাখার সিইও আদর পুনাওয়ালা দাবি করেন অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের তৈরি ভ্যাকসিনের পরীক্ষা যদি সফল হয় তাহলে সেটি আগামী অক্টোবর নভেম্বর মাসের মধ্যে ভারতের বাজারে পৌঁছে যাবে।

যারা জানেনা তাদের উদ্দেশ্যে বলে রাখি এই সেরাম ইনস্টিটিউট টি হল বিশ্বের সেরা সাতটি ইনস্টিটিউট এর মধ্যে অন্যতম একটি সেরা ইনস্টিটিউট। এদিন আদর পুনাওয়ালা জানান করোনা প্রতিরোধে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের যারা গবেষক রয়েছেন তারা তাদের আবিষ্কার সাফল্য পেলে তা খুব কম সময়ের মধ্যে বানাতে শুরু করবে সেরাম,সাধারণত ভ্যাকসিন তৈরি করতে অনেক সময় লাগে তবে যেহেতু এখন আপাতকালীন পরিস্থিতি সেক্ষেত্রে দুই সপ্তাহের মধ্যে ভ্যাকসিনের তৈরীর চেষ্টা করবে তারা এমনটা তারা জানিয়েছেন।

শুধু তাই নয় এক মাসের মধ্যে 50 লক্ষ ভ্যাকসিন তৈরি পরিকল্পনা রয়েছে তাদের, আর ছয় মাসের পরে সেই সংখ্যাকে কোটিতে পৌঁছাতে পারা যাবে।তার পাশাপাশি সংস্থার তরফ থেকে জানানো হয়েছে ব্রিটেনে ভ্যাকসিনের সফল হলে ভারত ও এটা পরীক্ষা করা হবে এবং তার কার্যকারিতা যদি প্রমাণিত হয় তাহলে সে ক্ষেত্রে অক্টোবর-নভেম্বর মাসে ভারতের মতো দেশে উৎপাদন শুরু হবে এই ভ্যাকসিনের।