দেশবিশেষভারতীয় সেনা

মাসুদ আজহার কে তুলতে না পারলে আমাদের বলুন আমরাই যাব, হুঁশিয়ারি ইমরানকে পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং এর।

ভারতের উপর যে আত্মঘাতী জঙ্গি হামলা হয়েছে তার দোষ ঝেড়ে ফেলতে মরিয়া পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। হামলায় পাকিস্তানের যোগ থাকার প্রমাণ যদি ভারত দিতে পারে তাহলে তিনি ব্যবস্থা নেবেন পাক সংবাদমাধ্যমের কাছে এমনটাই বলেন তিনি গতকাল। ইমরান খানের এমন বক্তব্যের পর কড়া ভাষায় জবাব দিয়েছেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং। মুম্বাই হামলার প্রসঙ্গ টেনে এনে তিনি বলেন, মুম্বাইয়ের 16/11 হামাকর এর পর প্রমাণ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সেই প্রমাণ দেওয়ার পরও পাকিস্তান কোন ব্যবস্থা নেয়নি। একই সঙ্গে তিনি মাসুদ আজহারের প্রসঙ্গ টেনে আনেন অমরিন্দর সিং। ট্যুইটে তিনি লিখেছেন, ‘ বাহাওয়ালপুরে মাস্টারমাইন্ড জইশ চিফ মাসুদ আজহার বসে রয়েছেন।

আইএসআই এর সাহায্যে এই হামলার নির্দেশ দিয়েছে। সেখান থেকে তাকে তুলে আনুন।’ ইমরান কে হুঁশিয়ারি দিয়ে পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী মন্ত্রী আরও বলেন, ‘ যদি তাকে তুলে আনতে না পারেন, তাহলে আমাদেরকে বলুন। আমরা কাজটা করে দেব।’ এর আগেও পুলওয়ামায় হামলার ঘটনার পর পাকিস্তানকে কড়া বার্তা দেন পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন,’ চোখের বদলে চোখ, দাঁতের বোতলের দাঁতের নীতি নিতে হবে। আমাদের 41 জন জাওয়ানদের প্রাণ নেওয়া হয়েছে। হামলাকারীদের দেশে 82 জনের প্রাণ নিতে হবে। ‘ এখানেই তিনি থামেননি, তিনি আরও বলেন,’ পাকিস্তান এবং জঙ্গি সংগঠনগুলোকে কড়া বার্তা দিতে যত সেনা আমাদের শহীদ হয়েছেন তার দ্বিগুণ অর্থাৎ 82 জন কে খতম করতে হবে আমাদের।’ তিনি বলেন, এখনই আমাদের পদক্ষেপ নেওয়ার সময়। এখন যুদ্ধ করতে যেতে বলছে না কিন্তু সেনা হত্যা মজা নয়।

কিছু একটা ব্যবস্থা নিতেই হবে। মঙ্গলবার সকালে লেফটেন্যান্ট জেনারেল কনওয়ালজিত সিং ধিলোন বলেন, জইশ-ই -মহম্মদ পাকিস্তানের সন্তান। এই পুলওয়ামার ঘটনায় 100% পাকিস্তানের হাতে রয়েছে বলে তিনি জানান। তবে এই ঘটনার পর পাক অনুপ্রবেশ অনেকটাই কমে গিয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। এরপর পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ভাষণ দেন। তিনি বলেন, এটা নতুন পাকিস্তান। এই নতুন পাকিস্তান শান্তি চাই। তবে আঘাত করলে তার পাল্টা জবাব দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ইমরান খান। তিনি আরও জানান, ভারতের সংবাদমাধ্যমে বারবার শোনা যাচ্ছে যে পাকিস্তানের উপর প্রতিশোধ নিতে হবে। পাক প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ আমরা জানি ভারতের সামনে লোকসভা নির্বাচন। তার আগে পাকিস্তানের উপর আঘাত আনতে পারলে নির্বাচনে লাভ হবে।’

Related Articles

Back to top button