“অন্য কোথাও নয়, নন্দীগ্রাম থেকেই জিতে দেখাবো তারপর বিজেপির মুখে চুনকালি মাখাবো” মুখ্যমন্ত্রী মমতা

এবারের ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচন আটটি দফায়। প্রথম দফার ভোট গ্রহণ হয়েছে ২৭ মার্চ। দ্বিতীয় দফার ভোট হল গতকাল অর্থাৎ ১ এপ্রিল। গতকাল দ্বিতীয় দফার ভোটে অনুষ্ঠিত হয়েছিল নন্দীগ্রামের ভোট। তারপর থেকে প্রধানমন্ত্রী বাংলার আকাশে-বাতাসে একটি বার্তা ছড়িয়ে দেন যে নন্দীগ্রামে পরাজয় জেনেই মুখ্যমন্ত্রী নাকি বাংলার অন্যত্র কোনো কেন্দ্রে প্রার্থী হওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এই ব্যাপারে এবার মুখ খুললেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী।

 

এবারের বিধানসভা ভোটের হটস্পট হল নন্দীগ্রাম। নন্দীগ্রামে এবার তৃণমূলের হয়ে প্রার্থী হয়েছেন স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী নিজেই। মুখ্যমন্ত্রীর বিপরীতে বিজেপির হয়ে লড়াই করছেন শুভেন্দু অধিকারী। এদিন দ্বিতীয় দফার ভোটে পুরো দিনে বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সংঘর্ষের ছবি উঠে আসে।

নন্দীগ্রামের বয়েলের কেন্দ্র থেকে মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেন যে ৮০% ভোটই হয়েছে ছাপ্পা ভোট। ওই কেন্দ্রে তৃণমূলের পোলিং এজেন্টকে বসতে দেওয়া হয়নি। সাধারণ মানুষকে বিজেপি ভোট দিতে দেয়নি বলে মুখ্যমন্ত্রী অভিযোগ করেছেন। ওইদিনই প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন যে মুখ্যমন্ত্রী নাকি জানতে পেরেছেন নন্দীগ্রামে তিনি পরাজিত হচ্ছেন তাই তিনি অন্যত্র প্রার্থী হওয়ার জন্য পরিকল্পনা করছেন।

আজ দিনহাটার সভাতে এই বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী স্পষ্ট জানিয়েছেন যে তিনি প্রধানমন্ত্রীর দলের লোক নন। প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ মুখ্যমন্ত্রী শুনবেন না। মুখ্যমন্ত্রী নন্দীগ্রামে প্রার্থী হয়েছেন। নন্দীগ্রাম থেকেই তিনি জয়ী হয়ে বিজেপির মুখে চুনকালি মাখাবেন।