সর্বপ্রথম, আমি ভারতীয় ! একটা প্রশ্নের উত্তর দিয়েই সবার মন জিতেছিলেন ইসরো চিফ কে শিভান

ডঃ কে সিভন যিনি ইসরোর চেয়ারম্যান তাকে হয়তো জানেন না এমন কম ভারতীয় হয়তো খুব কম জনই আছেন। শুধু ভারতে বললে কম হবে ভারতের বাইরেও বিদেশেও তার খ্যাতি নামা ছড়িয়ে রয়েছে। চন্দ্রযান টু এর মূল মাস্টারমাইন্ড হলেন তিনি। তবে তাকে যখন সাংবাদিক বৈঠকে জিজ্ঞেসা করা হয় এত বড় পদে অধিষ্ঠিত হওয়ার পর তিনি তামিলনাড়ু মানুষ হিসাবে সেই রাজ্যের বাসিন্দাদের কী বার্তা দেবেন তার উত্তর দিতে গিয়েই ইসরোর চেয়ারম্যান বলেন যে, প্রথমে তাঁর পরিচয় তিনি একজন ভারতীয়৷

তারপরে ইসরোর প্রসঙ্গ টেনে সেখানে বিভিন্ন অঞ্চল ও ভাষার লোকজন কাজ করে বলে জানান তিনি৷এমনকি তাঁরা সকলেই তাঁর কাছে ভাইয়ের মতো বলে জানান শিভন৷ শিভানের এমন একটি মন্তব্য মন জয় করেছে গোটা দেশবাসীর। এত বড়ো ইসরোর চেয়ারম্যান এর এরকম এক সামাজিক মন্তব্যের জেরে অনেকে টুইট করেছেন।এই বিষয় নিয়ে নয়াদিল্লিতে কর্মরত এক বিহারের যুবক টুইট করে লিখেছেন যে , তিনি শিভনকে নিয়ে খুবই গর্বিত।

তিনি এদিন টুইট করে লিখেন ডঃ শিভন ধর্মের কোন ভাষায় কথা বলেন সেটা বড় কথা নয়, বড় কথা হলো তিনি একজন বিশ্ববিখ্যাত মহাকাশ সংস্থার সৎকর্মী ও চেয়ারম্যান তথা তিনি আমাদের দেশের অন্যতম একজন নায়ক। শুধু এখানেই শেষ নয় এই ইসরোর চেয়ারম্যানের বক্তব্য আমি ভারতীয় এই মন্তব্যের জেরে হায়দ্রাবাদ থেকে বিশ্বনাথ নামে এক ব্যক্তি পিভিসি সিন্ধুর প্রসঙ্গ টেনে আনেন বলেন পিভি সিন্ধুর জন্য যখন তাঁর এলাকার লোকজন আঞ্চলিকতার জন্য গর্ব বোধ করেন তাহলে কিভাবে এই দ্বৈতত্ত্বের পুনর্মিলন করবেন তাঁরা, এই প্রশ্ন তোলেন৷

উল্লেখ্য কন্যাকুমারী এক ছোট গ্রাম অঞ্চল থেকে উঠে আসা বর্তমানে ইসরোর চেয়ারম্যান চন্দ্রযান-এর উৎক্ষেপণের জন্য তার অবদান অনেক। দিনরাত তিনি দেশের নাম উজ্জ্বল করার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছেন। তাই মাত্র কয়েক মিনিটের জন্য ল্যান্ডার বিক্রম হারিয়ে যাওয়ার পরে তিনি মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েছিলেন। যদিও কিছুক্ষণ বিরতির পর আবার খোঁজ মিলেছে তবুও এবার সফল অভিযানের আশায় দিন গুনছেন তিনি। তিনি আপ্রাণ চেষ্টা করছেন চন্দ্রযান মিশনকে 100% ভালো ভাবে সম্পন্ন করার জন্য। যেমন কি আপনারা জানেন এই মিশন আপাতত 95 শতকরা সম্পন্ন হয়েছে।

এখন শুধু ল্যান্ডার বিক্রমের সঙ্গে সংযোগ স্থাপন করার অপেক্ষা মাত্র আর এই সংযোগ স্থাপন হয়ে গেলে এই মিশনটি 100 শতকরায় সম্পন্ন হবে।