TATA কে টেক্কা দিতে সস্তায় ছোট ইলেকট্রিক গাড়ি আনছে Hyundai

সারা বিশ্বে বৈদ্যুতিক গাড়ির জনপ্রিয়তা বাড়ছে। ভারতেও বিক্রি বেড়েছে বৈদ্যুতিক গাড়ির। যদিও এখনো পর্যন্ত এই গাড়িগুলির দাম অনেকটা বেশি হওয়ার কারণে অনেকেই ইচ্ছা থাকলেও এই গাড়ি কিনতে পারছেন না। দেশের সবথেকে সস্তা বৈদ্যুতিক গাড়ি টাটা নেক্সনের দাম শুরু হচ্ছে ১৪.৭৯ লাখ টাকা থেকে। এমন পরিস্থিতিতে, হুণ্ডাই কোম্পানী, মধ্যবিত্ত গ্রাহকের কাছে বৈদ্যুতিক গাড়ি তুলে দিতে সস্তায় নতুন গাড়ি লঞ্চের পরিকল্পনা শুরু করেছে।


সম্প্রতি রয়টার্সে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, ভারতের রাস্তার জন্য একটি ছোটো আকারের বৈদ্যুতিক গাড়ি তৈরি শুরু করেছে হুন্ডাই। যদিও ভবিষ্যতে ভারতে একাধিক প্রিমিয়াম বৈদ্যুতিক গাড়ি আনার পরিকল্পনাও রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ায় এই সংস্থাটির। ভারতে বৈদ্যুতিক গাড়ির দাম কম রাখার জন্য দেশের মধ্যে উৎপাদনের পরিকল্পনা রয়েছে এই সংস্থাটির। বৈদ্যুতিক গাড়ি উৎপাদন ছাড়াও চার্জিং পরিকাঠামোয় জোর দিচ্ছে হুন্ডাই, এছাড়াও সেলস নেটওয়ার্ক তৈরিতেও নজর দিয়েছে হুন্ডাই।

এই বৈদ্যুতিক গাড়ি ভারতের বাজারে কবে আসবে সেই বিষয়ে কোনো তথ্য প্রকাশ্যে আসেনি। ২০২৮ সালের মধ্যে ভারতে ৪০,০০০ কোটি টাকা লগ্নি করে ৬টি বৈদ্যুতিক গাড়ি আনার পরিকল্পনা রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার সংস্থাটির। পরিবেশ দূষণ কমাতে ও বৈদ্যুতিক গাড়ির জনপ্রিয়তা বাড়াতে এই পরিকল্পনা নিয়েছিল হুন্ডাই। এই মুহূর্তে দেশের মোট গাড়ির ১ শতাংশেরও কম গাড়ি বিদ্যুতের মাধ্যমে চলে। ২০৩০ সালের মধ্যে সংখ্যা বেড়ে ৩০ শতাংশ করার লক্ষ্যে কেন্দ্র।


পেট্রল, ডিজেল চালিত গাড়ির থেকে সম্পূর্ণ আলাদা উপায়ে বৈদ্যুতিক গাড়ি তৈরি করবে হুন্ডাই। শীঘ্রই ভারতে আইওএনআইকিউ ৫ আনতে চলেছ হুন্ডাই। সম্প্রতি চালু হওয়া কেআইএ ইভি৬এর থেকে কম খরচে এই বৈদ্যুতিক গাড়ি বাজারে আসবে। বৈদ্যুতিক গাড়ির দুনিয়ায় অত্যন্ত জনপ্রিয়তা পেয়েছে হুন্ডাই আইওএনআইকিউ ৫ নামক গাড়িটি। একাধিক জায়গায় বছরের সেরা গাড়ির শিরোপা জিতেছে এই গাড়িটি। ভারতে ৫৮ কিলোওয়াট ব্যাটারি ভার্সন লঞ্চ করতে পারে হুন্ডাই, যেখানে শুধুমাত্র পিছনের চাকায় শক্তি পাওয়া যাবে, তবে হুন্ডাই ছাড়াও ভারতে সস্তায় বৈদ্যুতিক গাড়ি চালু করার জন্য অবিরাম কাজ করে চলেছে টাটা মোটরস ও মাহিন্দ্রার মতো নামী কোম্পানীগুলি।