মাঝ সমুদ্রে শক্তি বাড়িয়ে ধেয়ে আসছে প্রবল ঘূর্ণিঝড় তাউকট, একাধিক জায়গাতে জারি সতর্কতা

আরব সাগরে আরো শক্তি সঞ্চয় করে উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় তাউকটে (tauktae)। আবহাওয়া অফিস সূত্রে খবর পাওয়া গেছে শনিবার সকাল থেকে কোচির উপকূলে আরও শক্তি সঞ্চয় করবে এই এই ঘূর্ণিঝড়টি। ১৮ই মে মঙ্গলবার সকালে গুজরাটের উপকূলে (Gujarat Coast) ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৮০ কিলোমিটার গতিতে আছড়ে পড়তে চলেছে বলে অনুমান আবহাওয়াবিদদের। যার জেরে লাল সতর্কতা জারি করা হয়েছে বেশকিছু এলাকায়।

ভারতীয় নৌসেনার মুখপাত্র ট্যুইটে এর আগেই জানিয়েছেন যে, কোচির উত্তর-পশ্চিম উপকূলে গভীর নিম্নচাপের সৃষ্টি হয়েছে। শুক্রবার ও শনিবার তা আরও শক্তিশালী হয়ে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে। বিপর্যয় মোকাবিলার জন্য সেনাবাহিনীদের তরফ থেকে জাহাজ, বিমান, হেলিকপ্টার, ডাইভিং প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

 

আবর সাগর এবং লাক্ষাদ্বীপ এলাকা থেকে আগত এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে ইতিমধ্যেই মহারাষ্ট্র, কেরল এবং গুজরাটের বেশকিছু এলাকায় বৃষ্টি শুরু হয়ে গেছে। গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রুপানি জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড়ের জন্য রাজ্যজুড়ে সতর্কতা জারি করা হয়েছে।

আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর পাওয়া গেছে, উত্তর, উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে গুজরাট উপকূলের দিকে এগোবে ঘূর্ণিঝড়। লাক্ষাদ্বীপ, কেরল, তামিলনাড়ু, কর্নাটক, দক্ষিণ কঙ্কন, মহারাষ্ট্র ও গোয়ায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। মৎস্যজীবীরা যাতে উপকূলে না যায় সেই বিষয়ে অনুরোধ করা হয়েছে।

এই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব পশ্চিমবাংলায় না পড়লেও এই ঘূর্ণিঝড়ের জেরে তাপমাত্রা বাড়তে পারে বলে অনুমান আবহাওয়া দপ্তরের। শনিবার কলকাতা শহরের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি থাকবে।