উগ্র ইসলামিক সন্ত্রাসবাদকে রুখতে এবার মোদীর পাশে দাঁড়ালেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প..

হাউডি মোদির মঞ্চ থেকে পাকিস্তানের নাম না নিয়ে কড়া বার্তা দিলেন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, হুংকার দিলেন সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করার সঠিক সময় এসে গেছে এবার। এই দিন প্রধানমন্ত্রী বলেন ভারত যা করেছেন তাতে কিছু লোকের সমস্যা হচ্ছে আর তা নিয়ে তারা দেশের বিভিন্ন প্রান্তে গিয়ে অভিযোগ যানাচ্ছে। সন্ত্রাসবাদকে তারা কোলে পিঠে করে মানুষ করছে তবে এখন তাদের পরিচয় গোটা বিশ্ব বিশ্ব জেনে গেছে।

আমেরিকায় 9/11 বা মুম্বাইয়ের 26/11 হামলায় অভিযুক্তরা কোথায় পাওয়া যায় তা তো সবাই জানেই। এই দিন তিনি বলেন সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের সময় এসে গেছে। এইদিন পাকিস্তানের নাম করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আরো বলেন যে ভারতের প্রতি ঘৃণায় ওদের রাজনীতি, ওরা বিভিন্ন দেশে অশান্তি চাই ওরা , শুধু তাই নয় ওরা সন্ত্রাসের সমর্থক। এর আগে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদির সাথে সন্ত্রাসবাদের মোকাবেলা করা বার্তা দিয়েছিলেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

আর এই দিন হাউডি মোদির মঞ্চ থেকে আরো একবার বার্তা দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।এই দিন তিনি বলেন ভারত মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবার হাতে হাত মিলিয়ে ইসলামিক সন্ত্রাসবাদকে রুখে দেবে।একইসঙ্গে সীমান্ত নিরাপত্তা ও অনুপ্রবেশ নিয়েও ভারতের সঙ্গে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করারও কথাও জানিয়ে দিলেন। এইদিন ট্রাম্পের এরকম মন্তব্যের জেরে গোটা হলে হাত তালি জোরে ফেটে পড়ল।

এমনকি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নিজে উঠে হাততালি দিলেন,সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের তিনি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কে ধন্যবাদ ও জানালেন। দেশে যেখানে নাগরিক পঞ্জি নিয়ে শোরগোল চলতে শুরু হয়েছে ঠিক সেই সময় মার্কিন প্রেসিডেন্ট এমন মন্তব্য উঠে এল যেখানে বিবেচনা করা হচ্ছে অনুপ্রবেশের সমস্যার কথা নিয়ে।এই দিন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন এবার দুই দেশ একসঙ্গে সীমান্তে সুরক্ষার কাজ করবে।তিনি জানান এবার ভারত এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে একসঙ্গে সীমান্ত সুরক্ষার ব্যবস্থা নিতে হবে।

দেশে অনুপ্রবেশ কারীদের প্রবেশ নিষেধ করতে হবে কারণ সেসব অনুপ্রবেশকারীরা দেশের নিরাপত্তার জন্য বিপদজনক। তিনি বলেন সীমান্ত সুরক্ষা দেশের খুবই একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় আর এই দিকে লক্ষ্য করা দেশের পক্ষে অত্যন্ত আবশ্যক। এইদিন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প আরো বলেন যে দক্ষিণ সীমান্তে অনুপ্রবেশ টা বর্তমানে আমরা আটকে দিতে পেরেছি। অনুপ্রবেশ কারীরা আমাদের করের টাকায় সমস্ত সুযোগসুবিধা নেয়।আর এবার থেকে এটা চলবে না। বৈধ শরণার্থীরা দেশে কর দেয়। দেশের নিয়ম-কানুন মেনে চলেন তারা তাই তাদের সবসময় দেশে স্বাগত।”

The India Desk

Indian famous bengali portal, covers the breaking news, trending news, and many more. Email: theindianews.org@gmail.com

Related Articles

Close