হুড় হুড় করে নামছে তাপমাত্রার পারদ! কনকনে ঠাণ্ডায় কাঁপছে গোটা বাংলা, একনজরে বাংলার আবহাওয়ার আপডেট

যে শীতকালের এতদিন ধরে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করেছিল সাধারণ মানুষ তথা পশ্চিমবঙ্গবাসী, সেই শীতকাল চলে এসেছে আমাদের সকলের কাছে। আর এসেছে বললে ভুল বলা হবে, একেবারে জমিয়ে বসেছে আমাদের কাছে। সোমবার এখনো পর্যন্ত সবথেকে শীতলতম দিন ছিল। ন্যূনতম তাপমাত্রা ছিল ১১.২ ডিগ্রী সেলসিয়াস। তবে তাপমাত্রা এরপর কিছুটা বাড়বে বলে মনে করছেন আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর।

আলিপুর আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, আগামী ৪৮ ঘণ্টায় অর্থাৎ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত সবকটি জেলার আবহাওয়া শুকনো থাকবে। পাশাপাশি পরিষ্কার থাকবে আকাশ। বুধবার সকাল পর্যন্ত স্বাভাবিক তাপমাত্রার কোন পরিবর্তন হবে না। তবে আগামী বেশ কয়েকদিনে তাপমাত্রা কিছুটা বাড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।

এ তো গেল উত্তরবঙ্গের কথা। এবার কথা বলি দক্ষিণবঙ্গের। আগামী ৪৮ ঘণ্টায় দক্ষিণবঙ্গের সর্বত্র আবহাওয়া শুকনো থাকবে। পাশাপাশি আকাশ পরিষ্কার থাকবে। বুধবার পর্যন্ত তেমন তাপমাত্রায় পরিবর্তন না হলেও আস্তে আস্তে তাপমাত্রা বাড়বে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া দপ্তর। সোমবার বলা হয়েছিল দক্ষিণবঙ্গের ১০ টি জেলায় শৈতপ্রবাহ হতে পারে তবে এখন আর তেমন কোনো সতর্কবার্তা নেই।

সবশেষে কথা বলব কলকাতার। কলকাতায় আগামী ২৪ ঘণ্টায় আকাশ পরিষ্কার থাকবে। সর্বোচ্চ এবং সর্বনিম্ন তাপমাত্রা থাকবে যথাক্রমে ৩০ এবং ১২ ডিগ্রী সেলসিয়াস। এদিন সকালে কলকাতার ন্যূনতম তাপমাত্রা খুব সামান্য বেড়েছে।
সোমবার ন্যূনতম তাপমাত্রা ছিল ১১.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস যা বেড়ে আজ দাঁড়িয়েছে ১১.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা( ডিগ্রি সেলসিয়াস) ব্র্যাকেটে আগের দিনের তাপমাত্রা আসানসোল ১০.৩ (৯.৫)

বালুরঘাট ১২.২ (১২.৮)

বাঁকুড়া ৯.৭ (৮.৯)

ব্যারাকপুর ১০.৪ (১০.২)

বহরমপুর ১০.৪ ( ১০.৬)

বর্ধমান ১০ (৮.৬)

ক্যানিং ৯.৮ (৯)

কোচবিহার ৭.৮ (৯.৩)

দার্জিলিং ৫ (৩.৫)

দিঘা ৯.৪ (৯.৬)

কলকাতা ১১.৬ (১১.২)

মালদহ ১২.৭ (১১.৫)

পানাগড় ১০.৯ (৭.৬)

শিলিগুড়ি ৮.৪ (৮.৬)

শ্রীনিকেতন ১০ (৭.১)