ফের শুরু করা হল “প্রচেষ্টা” প্রকল্পের কাজ, এবার থেকে অনলাইনের মাধ্যমে করতে পারবেন আবেদনপত্র জমা

কয়েকদিন আগেই রাজ্য সরকারের তরফ থেকে প্রচেষ্টা প্রকল্প আনা হয়। কিন্তু কিছু কারণবশত এই প্রকল্প বন্ধ করতে বাধ্য হয় রাজ্য সরকার। এরপর বহু ব্যবধান কাটিয়ে ফের শুরু হতে চলেছে প্রচেষ্টা প্রকল্পের কাজ। কিন্তু এবার তার জন্য সশরীরে গিয়ে ফর্ম জমা দিতে হবে না আপনাকে। অর্থাৎ সোমবার থেকে ‘প্রচেষ্টা’ অ্যাপের মাধ্যমে আবেদনকারীরা ফর্ম জমা দিতে পারবেন। আপনি প্লে স্টোর থেকে এই অ্যাপটি ডাউনলোড করতে পারবেন। যে সমস্ত মানুষেরা সামাজিক সুরক্ষা যোজনার সুবিধা বা  সামাজিক পেনশন পান না, সেই সমস্ত অসংগঠিত শ্রমিকদের জন্য এই প্রচেষ্টা প্রকল্প চালু করা হয় রাজ্য সরকারের তরফ থেকে।

এই প্রকল্পের আওতায় মাথা পিছু এককালীন এক হাজার টাকা করে পাবে শ্রমিকরা। সম্প্রতি 27শে এপ্রিল প্রচেষ্টা প্রকল্পের ফর্ম নেওয়া এবং জমা দেওয়ার জন্য জেলাশাসক,মহকুমাশাসক, বিডিও অফিসে বহু মানুষের ভিড় হয়। ভীড় এতটাই বেড়ে যায় যে পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশকে ডাকা হয়। এরপর সরকারের তরফ থেকে এই প্রকল্পের সমস্ত কাজ আপাতত বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়। তবে সেই দিনেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়ে দিয়েছেন, ” প্রচেষ্টা প্রকল্প বন্ধ হচ্ছে না।

এ নিয়ে একটু সমস্যা চলছে। তা ঠিক করার কাজ ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে।” আবেদনকারীকে পরিবারের একমাত্র রোজকার হতে হবে। তিনি স্বনির্ভর হল রাজ্য বা বেসরকারি সংস্থার কর্মী হতে পারবেন না। একটি পরিবার (স্বামী,স্ত্রী এবং অবিবাহিত মেয়ে বা ছেলে) থেকে একজন মানুষের প্রকৃত প্রকল্পের আবেদন করার সুযোগ পাবেন।দ্বিতীয়ত,রাজ্য সরকারের সামাজিক পেনশন প্রাপক বা কোনও সামাজিক সুরক্ষা যোজনা উপভোক্তা এই প্রকল্পে আবেদন করতে পারবেন না। তৃতীয়ত, একশো দিন কাজের প্রকল্প এবং কৃষি কাজের সঙ্গে যুক্ত শ্রমিকরাও এই প্রকল্পের আবেদন করতে পারবেন না।

অ্যাপের মাধ্যমে ফর্ম ফিলাপ করার সুযোগ থাকায় আগের তুলনায় অনেক বেশি আবেদন জমা পড়বে বলে মনে করা হয়েছে। সেই সমস্ত আবেদন খুঁটিয়ে দেখার জন্য একটি কমিটি গঠন করবে জেলাশাসক। এই প্রকল্প নিয়ে বিভিন্ন জেলায় বৈঠক করেন জেলাশাসক এমনটাই জানা গিয়েছে। এই বৈঠকে বলা হয়েছে, নির্দেশিকা অনুসারে প্রতিটি আবেদনকে খুঁটিয়ে দেখতে হবে। এ সম্পর্কে কোনো রকম ভুল ভ্রান্তি যেন না হয়। এখনো পর্যন্ত ঠিক হয়েছে 15 ই মে পর্যন্ত আবেদন করার সুযোগ দেওয়া হবে।