আবারো হাসির পাত্র হলেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান প্রকাশ্যে এলো স্যালারি স্লিপ!যা দেখে বিরোধীরা পর্যন্ত বলল এটা ভন্ডামি তার…

প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানের যে দীর্ঘদিন ধরে অর্থনৈতিক দুরবস্থা চলছে তা বিভিন্ন রিপোর্টে প্রকাশ পেয়েছে। বিভিন্ন নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম আকাশছোঁয়া হওয়ার কারণেই সেখানে সাধারণ মানুষের দুবেলা-দুমুঠো খাবার জোগাড় করা দুঃসাধ্য ব্যাপার হয়ে উঠেছে। এমনকি অনেকবারই এ খবর প্রকাশ্যে আসছে এই আর্থিক দুরবস্থায় জেরে উনুন ও পর্যন্ত বসছে না বলে। কিন্তু এই সমস্ত জিনিস তো সাধারণ মানুষের কথা এবার আপনাদের পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বেতন সম্পর্কে জানালে ব্যাপারটা খুব একটা স্বস্তিদায়ক হবে না।

পাক প্রধানমন্ত্রী ঠিক কতটা পরিমাণ বেতন পান তা আমরা অনেকেই জানি না। কিন্তু সত্যিটা হলো পাক প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ইমরান খানের যতটা বেতন পাওয়া উচিত তার থেকে অনেক কম পান। এমনকি ওই টাকায় সংসার চালানো রীতিমতো মুশকিল।
খোদ প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান স্বীকার করে নিয়েছেন যে, তার বেতনের টাকায় সংসার চালানো মুশকিল হয়ে পড়েছে। পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলোচনা করার সময় এ কথা জানিয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে।

মূলত ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ট্যাক্স সংক্রান্ত আলোচনা করার সময় তার বেতনের কথা উল্লেখ করেছেন তিনি নিজে। পাক প্রধানমন্ত্রীর এই স্বীকারোক্তি বিপক্ষে আবার অনেকেই বলছেন যে, পাকিস্তানের সাধারণ মানুষের মন জেতার জন্য তিনি ওই কথা বলেছেন। তার এই স্বীকারোক্তি পুরোপুরি মিথ্যে। অপরদিকে পাক নাগরিকরা নিজেদের প্রয়োজনের তুলনায় অনেক কম টাকা উপার্জন করেন বলে জানা গিয়েছে। এছাড়া পাকিস্তানের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস যেমন চাল, ডাল, রুটি এই সমস্ত জিনিস গুলির দাম দ্বিগুণ বেড়েছে।

এটা স্পষ্ট যে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের যা বেতন তা দিয়ে পাক নাগরিকদের সংসার খুব ভালোভাবে চলে যাবে। পাকিস্তানের টাকায় ইমরান খানের বেতন হল 1 লক্ষ 7 হাজার 280 টাকা। জি মিডিয়ার এক নিউজ চ্যানেল WION প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের স্যালারি স্লিপ হাতে পেয়েছে। সেই সুইট স্পষ্ট বোঝা যাচ্ছে যে প্রধানমন্ত্রীর বেতন পাকিস্তানি রুপিতে 2 লক্ষ 1 হাজার 574 টাকা। এরপর ট্যাক্স নিয়ে তার মোট বেতন হয় 1 লক্ষ 96 হাজার 979 টাকা। অপরদিকে ইমরান খানের অভিযোগ তাতেই ট্যাক্স নাকি বিরোধী দলের নেতারা চুরি করে নেন।

Related Articles

Close