কীভাবে জানবেন আপনার স্মার্টফোনে ব্যবহার করা অ্যাপসটি কোন দেশের, রইল খুঁটিনাটি..

চীন তার দাদাগিরি দেখিয়ে লাদাখে নিজের খুঁটি স্থাপন করতে চাইছে তবে এক্ষেত্রে দেশের 137 কোটি ভারতবাসী এটা কোন প্রকারের মেনে নিতে পারছেন না। চীনের এরকম আচরণ ও নীতির ফলে এক প্রকার সকল ভারতবাসী ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছে, আর দেশকে আত্মনির্ভর করে তুলতে এই সুরে সুর মিলিয়েছে সেলিব্রিটি থেকে শুরু সকল সাধারণ মানুষ এবং তারা সকলেই চীনা পণ্য বর্জনের ডাক দিয়েছেন।আর অনেকেই এখন এই চীনা পণ্য বর্জনের সবচেয়ে সহজ পথ হিসেবে বেছে নিয়েছেন স্মার্টফোনে থাকা সমস্ত রকমের চীনা অ্যাপসগুলোকে বর্জন করা।

আর যার প্রভাব ইতিমধ্যে পড়তে শুরু হয়ে গেছে এই মুহূর্তে, যার দরুন দেখা যাচ্ছে ভারতে চলতি চীনের সবচেয়ে বেশি অ্যাপের মধ্যে TIK TOK APP এর ব্যবহার নিত্যদিন কমছে। তবে শুধু টিক-টক অ্যাপটিই নয় আর পাশাপাশি কমছে অন্যান্য জনপ্রিয় চীনা অ্যাপস এর ব্যবহার ও‌। তবে এখন দেশের জনগণের কাছে একটি প্রশ্ন থেকে যাচ্ছিল কীভাবে তারা জানবেন তাদের স্মার্টফোনে ব্যবহারকারী অ্যাপসটি আসলে চীনা অ্যাপস না অন্য কোন অ্যাপস। অর্থাৎ কোন দেশ এই অ্যাপটি কে নির্মাণ করেছে।

এই সমস্যা সমাধানের জন্য কিছুদিন আগে 17 ই মে ভারতের জয়পুরের একটি সংস্থা যার নাম “one touch applabs” এর তরফ থেকে একটি অ্যাপ তৈরি করা হয় যে অ্যাপটির নাম ছিল “Remove China Apps”। যার মাধ্যমে সহজেই চেনা যাচ্ছিল চীনা অ্যাপস গুলিকে। তবে যেমনটা আমরা জানি গত দুদিন আগে মঙ্গলবার দিন রাতে গুগোল প্লে স্টোর থেকে এই অ্যাপটি সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। “Remove China Apps” এটির মাধ্যমে খুব সহজেই স্মার্টফোনে থাকা চীনের Apps গুলিকে শনাক্ত করা যেত। এখন প্রশ্ন যেহেতু এই অ্যাপস টি আর প্লে স্টোরে নেই তাহলে কীভাবে জানতে পারবেন এখন আপনার ফোনে ব্যবহারকারী অ্যাপসটি চীনা অ্যাপস কিনা।

আজকে আমরা আপনাদেরকে যে পদ্ধতিটি জানাবো তার মাধ্যমে খুব সহজেই আপনার ফোনে ব্যবহারকারী যে অ্যাপটি রয়েছে সেটি খুব সহজেই চিনতে পারবেন কোন দেশের অ্যাপস। এই পদ্ধতিটি অনুসরন করে খুব সহজেই চিনে নিতে পারবেন অ্যাপসটি কোথায় নির্মাণ করা হয়েছে। আর এক্ষেত্রে প্রয়োজন পড়বে না কোন অ্যাপ ডাউনলোড করার এটি আপনি আপনার মোবাইল এর মাধ্যমে দেখে নিতে পারবেন। এর জন্য আপনাকে গুগল এ গিয়ে টাইপ করতে হবে “অ্যাপের নাম” তারপর একটা স্পেস দিয়ে “origin country” লিখে দিতে হবে আর তারপর সার্চ করলেই সঙ্গে সঙ্গে দেখিয়ে দেবে অ্যাপটি কোন দেশের।

উদাহরণ স্বরূপ যদি আপনি জানতে চান Twitter অ্যাপসটি কোন দেশের তাহলে এক্ষেত্রে আপনাকে Google এ গিয়ে লিখতে হবে “Twitter origin country”,ব্যাস! তারপর আবার কী জেনে যাবেন অ্যাপসটি কোন দেশে নির্মাণ করা হয়েছে। আর এই পদ্ধতি অবলম্বন করে আপনার ফোনে যে অন্যান্য অ্যাপস গুলি রয়েছে এগুলিরও নির্মাণকারী দেশের নাম সম্বন্ধে জেনে নিতে পারবেন।

Related Articles

Close