মূখ্যমন্ত্রীর পদ ধরে রাখার জন্যই মোদীকে চটাতে চান না তিনি, বিস্ফোরক মন্তব্য দেবাংশু

ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়ককে নিয়ে এক মন্তব্য করার জেরে তৃণমূল মুখপাত্র দেবাংশু ভট্টাচার্য বিতর্কে জড়িয়েছেন। নবীন পট্টনায়ক কে নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে দেবাংশু বলেছেন মুখ্যমন্ত্রীর পদ ধরে রাখতে মোদীকে চটাতে চান না’। ওড়িশা এবং পশ্চিম বাংলার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ইয়াসের বিপর্যস্ত এলাকা পরিদর্শনের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এসেছিলেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের আগেই মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েক জানিয়ে দেন, “করোনা কালে কেন্দ্রের কাঁধে; আর বোঝা বাড়াতে চান না।

তাঁর রাজ্যের জন্য; কোন ক্ষতিপূরণ লাগবে না”। অপরদিকে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি ২০ হাজার কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করেন বাংলার জন্য। তারপর থেকেই ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রীর জন্য চারিদিকে প্রশংসা শুরু হয়ে যায়। আর মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির আচরণ নিয়ে বিতর্কের সঞ্চার হয়। এই দুই মুখ্যমন্ত্রীর তুলনার নানান মন্তব্য এখন বঙ্গ রাজনীতিকে সরগম করেছে। এবারেই এই নিয়েই মুখ খুললেন দেবাংশু ভট্টাচার্য।

 

ইয়াস পর্যালোচনায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে নাকি বাংলার মুখ্যমন্ত্রী উপস্থিত ছিলেন না। প্রধানমন্ত্রীর সাথে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি ভদ্রতা পূর্ণ আচরণ করেননি বলে মন্তব্য করা হয়েছে। এই নিয়ে নানা দিকে জল্পনা শুরু হয়েছে। অনেকেই মুখ্যমন্ত্রীর এই আচরণকে ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ বলে মনে করেছেন। এই প্রসঙ্গে তৃণমূল নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য বলেছেন , “কেন্দ্রের কাছে টাকা চাওয়াটা রাজ্যের নৈতিক অধিকারের মধ্যে পরে”। দুই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর তুলনা করতে গিয়ে দেবাংশু বলেন “উনি শুধুমাত্র মুখ্যমন্ত্রী থাকার জন্য; এইসব কাজগুলি করেন।


উনি কেন্দ্র সরকারকে চটাতে চান না। তবে মমতা ব্যানার্জী লড়াই করেন; আপনাদের জন্য। নোটবন্দিতে আপনি ঘন্টার পর ঘণ্টা দাঁড়িয়ে ছিলেন মমতা ব্যানার্জী আপনার জন্য লড়াই করেছিল”। দেবাশুর এই মতবাদ প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপির মহল থেকে বলা হয়, “বাচ্চা ছেলে, তাই নবীন পট্টনায়েক ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তুলনা করছে। নবীন পট্টনায়েক বিজেপি নেতা নন; কিন্তু উনি কত বড় নেতা; তা দেবাংশুর মাথায় ঢুকবে না”।