বর্ষায় ক্রমশ বেড়েছে চুল পড়া! সমস্যার সমাধান রয়েছে আপনার হেঁসেলেই

চুল পড়া নিয়ে প্রায় সকলের দুশ্চিন্তা। দিন রাত এই সমস্যায় ভুগছেন বহু মানুষ বিশেষ করে মহিলাদের এই বিষয়ে দুশ্চিন্তার শেষ নেই। বর্ষাকালে তো বিশেষ করে। বর্ষা পড়ার সাথে সাথেই যেন চুল পড়া আরও বেড়ে যায়।তবে জেনে রাখা ভালো এই দুশ্চিন্তা কিন্তু আপনার চুল পড়ার ক্ষেত্রে আরও ক্ষতি বাড়িয়ে দিচ্ছে দিন দিন। আপনার দুশ্চিন্তা মানসিক চাপ ও উদ্বেগ কিন্তু আপনার চুল পড়া আরও বাড়িয়ে দিচ্ছে। তবে চুল পড়া নিয়ে এত দুশ্চিন্তার কোন কারণ নেই।

বাড়তি যত্ন ও ঠিক করে খাওয়া দাওয়া বদলে দিতে পারে আপনার চুল পড়া। তবে খুব বেশি চুল পড়া শরীরের অন্যান্য রোগের উপসর্গ হতে পারে। সেক্ষেত্রে অতি সত্তর আপনার চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

চুল পড়ার সমস্যা কমাতে রোজ খুব বেশি পরিমাণ জল ও পুষ্টিকর খাবার খাওয়া উচিত। সাথে চুলের সঠিক ভাবে যত্ন অবশ্যই নিতে হবে। বর্ষাকালে খেয়াল রাখতে হবে আপনার চুলে যেন বৃষ্টির জল বসে না যায়। বৃষ্টির জলে ভিজে গেলে চুল,সেক্ষেত্রে অতি সত্তর চুলে শ্যাম্পু করে নিন। আপনার চুল কী ভীষণ তৈলাক্ত? তবে আপনার উচিৎ একদিন অন্তর একদিন মাথায় শ্যাম্পু করা।

বর্ষার সময় শুধু মাত্র শ্যাম্পু ও কন্ডিশনার লাগালেই চুলের যত্ন হয় না। এই সময়ে দরকার চুলে নিয়মিত তেল দেওয়া। চুলের স্বাস্থ্য ভালো রাখার জন্য সপ্তাহে অন্তত দুই থেকে তিনদিন উচিত তেল লাগিয়ে ভালো করে মাসাজ করা।এতে আপনার মাথার রক্ত চলাচল স্বাভাবিক হবে সাথে চুল পড়া অনেকটা কমে যাবে।

তবে এর জন্য আপনার প্রচুর অর্থ ব্যয় করে নানা রকম তেল লাগাতে হবে না। নিজেদের হেঁসেলেই পেয়ে যাবেন আপনাদের চুলের স্বাস্থ্য ভালো রাখার সমাধান। এর জন্য বাজার থেকে ভালো মাত্রার নারকেল তেল কিনে আনুন। মেথি ও কালো জিড়ে খুব ভালো করে রোদে শুকিয়ে নিন। সেটিকে গুঁড়ো করে নারকেল তেলের সাথে ভালো করে ফুটিয়ে একটি কাঁচের শিশিতে ঠান্ডা করে রেখে দিন। তারপর সপ্তাহে দুই থেকে তিন দিন এই তেল ব্যবহার করে মাথায় শ্যাম্পু করে ফেলুন। তারপর নিজেই বুঝতে পারবেন পরিবর্তন।