মোদী সরকারের দুর্দান্ত স্কিম! এখন মাত্র 55 টাকা করে জমালেই মিলবে 36,000 টাকা, বিস্তারিত জানতে

বৃদ্ধ বয়সে পথ চলার উপযোগী হয়ে ওঠে একটি লাঠি। লাঠি ধরে যেমন একজন বৃদ্ধ লোক এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যেতে পারে ঠিক তেমনি পেনশন বৃদ্ধ বয়সে একটা অবলম্বন। সরকারি চাকরির দিকে মানুষ বেশি ঝুঁকে কারণ সরকারি চাকরি করলে ৬০ বছরে রিট্যায়ার করার পর পেনশন পাওয়া যায়। আর বৃদ্ধ বয়সের পেনশন নিজের মতো জীবন কাটাতে সাহায্য করে। কিন্তু যারা অসংগঠিত ক্ষেত্রে কাজ করে তাদের তো আর পেনশন নেই।

তাই তাদের মাথায় সবসময় চিন্তায় থাকে কর্মজীবন থেকে অবসর নেওয়ার পর তাদের সংসার কিভাবে চলবে। এই সমস্ত মানুষের জন্য কেন্দ্র সরকার এক ধরনের পেনশন স্কিম চালু করেছে। এই স্কিম সম্পর্কে আমরা নীচে আলোচনার মাধ্যমে জেনে নেব।যে সমস্ত ব্যক্তিরা অসংগঠিত ক্ষেত্রে চাকরি করেন বা আর্থিক দিক থেকে দুর্বল শ্রেণীর জন্য কেন্দ্র সরকার এনেছে এক অভিনব প্রকল্প যার নাম প্রধানমন্ত্রী শ্রমযোগী মানধন যোজনা বা পিএম-এসওয়াইএম।

এই প্রকল্পের আওতায় মানুষদের ৬০ বছরের পর থেকে কেন্দ্র সরকার মাসে ৩০০০ টাকা অর্থাৎ বছরে ৩৬ হাজার টাকা দেবে। ১৮ থেকে ৪০ বছর বয়সী মানুষেরা এই প্রকল্পের আওতায় নিজের নাম লেখাতে পারেন। এই প্রকল্পের মাসিক কিস্তিও কম তাই খুব অল্প পরিমাণ টাকা বিনিয়োগ করে বৃদ্ধ বয়সে জীবন সুনিশ্চিত করণের পদ্ধতি হল প্রধানমন্ত্রী শ্রমযোগী মানধন যোজনা বা পিএম-এসওয়াইএম।

প্রধান মন্ত্রী শ্রমযোগী মানধন যোজনায় নাম অন্তর্ভূক্ত করা খুবই সহজ সাধ্য। এই যোজনায় অন্তর্ভুক্ত করতে গেলে পাবলিক সার্ভিস সেন্টারে গিয়ে আপনি প্রধানমন্ত্রী এসওয়াইএম অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন। অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য আপনার আধার কার্ড, ব্যাংকের পাস বইয়ের জেরক্স লাগবে। আপনার বয়স যদি ১৮ বছর হয় সেক্ষেত্রে ৪২ বছর বয়স পর্যন্ত আপনাকে প্রতিমাসে ৫৫ টাকা করে প্রিমিয়াম জমা দিতে হবে।

আবার ৩০ বছরের মধ্যে বয়স হলে জমা করতে হবে প্রতিমাসে ১০০ টাকা করে। আপনার বয়স যদি ৪০ বছরের বেশি হয় সেক্ষেত্রে আপনাকে প্রতিমাসে ২০০ টাকা জমা দিতে হবে। প্রতিমাসেই প্রিমিয়াম আপনাকে জমা করতে হবে তবে আপনার ৬০ বছর বয়স হবার পরে আপনি প্রতি মাসে ৩০০০ টাকা সরকার আপনাকে পেনশন দেবে। আপনার বয়স যদি ১৮ হয় তবে আপনাকে প্রিমিয়াম দিতে হবে ৪২ বছর বয়স পর্যন্ত।