ব্যাঙ্ক কর্মচারীদের জন্য দুর্দান্ত সুখবর! বাড়তে চলেছে ৩০ থেকে ৩৫ হাজার টাকা পেনশন

সম্প্রতি একটি তথ্যমতে ব্যাংক কর্মীদের জন্য একটি বড় সুখবর এর কথা শোনা যাচ্ছে। দেশের লাখ লাখ ব্যাংক কর্মীরা এতে উপকৃত হবেন বলে আশা করা যায়। এবার থেকে সমস্ত ব্যাংক কর্মীরা তাদের শেষ বেতনের ৩০শতাংশ পেনশন হিসাবে পেতে চলেছেন। বর্তমানে ব্যাংক কর্মীরা তাদের মোট স্যালারির মাত্র ১০ শতাংশ জমা করেন ন্যাশনাল পেনশন প্ল্যানে। এবার থেকে তা বেড়ে গিয়ে ১৪ শতাংশ করে জমা করতে পারবেন সমস্ত ব্যাংক কর্মীরা এরকমই খবর শোনা যাচ্ছে। এটি নিশ্চিত ভাবে সমস্ত ব্যাংক কর্মীদের জন্য একটি বড় সুখবর।

বেশ কিছু বছর ধরে রাষ্ট্রায়াত্ত ব্যাংক গুলি বেসরকারি কেন্দ্রীকরণ করার কথা চলছে। এই নিয়ে অনেক দোলাচলতার সৃষ্টি হয়েছে। বর্তমানে করোনাকালীন পরিস্থিতিতে কিছু ব্যাংকের মার্জার হয়েছে এবং এই প্রাইভেটাইজেশন নিয়ে আন্দোলন শুরু হয়েছে । মূলত রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক কর্মচারীরা আন্দোলনের পথে নেমেছে।

এইসময় পেনশনের নয় নীতি ব্যাংক কর্মীদের কাছে সত্যিই একটা বড় সুখবর ইন্ডিয়ান ব্যাংক অ্যাসোসিয়েশন এর প্রস্তাবে সম্মতি দিয়ে পেনশনের নিয়মে বেশ কিছু পরিবর্তন আনল সরকার কেন্দ্রের নতুন নিয়ম অনুযায়ী সমস্ত ব্যাংক কর্মীরা তাদের শেষ বেতনের ৩০ শতাংশ পেনশন হিসাবে জমাতে পারবেন।

ব্যাংকের ক্রমাগত কাজের পরিধি বৃদ্ধি হচ্ছে অপরদিকে সুযোগ-সুবিধা সেরকম কোনো উন্নতি হচ্ছে না। তাছাড়া বর্তমানে প্রাইভেটাইজেশন নিয়েও অসন্তোষ তৈরি হয়েছে কর্মীদের মধ্যে। এরইমধ্যে পেনশনের নয়া নীতি ব্যাংক কর্মীদের কাছে স্বস্তির বার্তা বহন করছে। অর্থমন্ত্রকের ফিনান্স শাখার সেক্রেটারি দেবাশীষ পান্ডার মতে পেনশনের এই নয়া নীতির ফলে ব্যাংক কর্মীদের পেনশন বেনিফিট ৩০ হাজার টাকা থেকে ৩৫ হাজার টাকা বেড়ে যাবে।

পূর্বে ব্যাংক কর্মচারীদের কাছে পেনশন তোলার লিমিট ছিল শেষ বেতনের পনেরো-কুড়ি – তিরিশ শতাংশ। একজন ব্যাঙ্ক কর্মী অবসরে পেনশন তোলার ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৯২৮৪ টাকা তুলতে পারতেন। ব্যাংক কর্মীদের পেনশন এর ক্ষেত্রে সার্বিক উন্নতি সেরকম কিছু হচ্ছিল না দেখে ব্যাংকিং অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে সরকারকে প্রস্তাব করা হয়েছিল যাতে এভাবে অর্থের পরিমাণ বাড়ানো যায়।

বুধবার সমস্ত পাবলিক সেক্টর ব্যাংক গুলি পারফরমেন্স খতিয়ে দেখেই এই সিদ্ধান্ত নেন নির্মলা সীতারামন। কিছুদিন আগে সরকারের পক্ষ থেকে ব্যাংক কর্মীদের মহার্ঘভাতা বাড়ানো হয়। এবার এই পেনশনের নয় নীতির ফলে অর্থের পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে ব্যাংক কর্মীদের। ফলে পেনশন এর পরিমাণ বাড়লে লাভের মুখ দেখবেন সমস্ত ব্যাংক কর্মচারীরা।