সংবাদমাধ্যমকে কড়া সর্তকতা কেন্দ্রের , বললেন কাশ্মীর ইস্যুতে ভুল তথ্য ছড়ালে দেওয়া হবে কঠোর শাস্তি…

দেশজুড়ে সংবাদমাধ্যমকে কড়া বার্তা দিল কেন্দ্র সরকার। কেন্দ্র সরকারের দাবি কাশ্মীর ইস্যুতে বেশ কিছু সংবাদমাধ্যম ভুল তথ্য পরিবেশিত করছে বা বিভ্রান্ত মুলক খবর ছড়ানোর চেষ্টা করছে তাই এবার ভুল তথ্য পরিবেশিত করা হলে সংবাদ মাধ্যমগুলির বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেবে কেন্দ্র। এক বিবৃতি জারি করে পরিষ্কার করে দেওয়া হয়েছে কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে এ কথা। কেন্দ্রের তরফ থেকে জানানো হয় গত শনিবার দিন কাশ্মীরের এক অশান্তি ছড়ানোর খবর প্রকাশিত করা হয়েছিল বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে তবে সে খবরটি ছিল সম্পূর্ণ ভুয়ো এবং বিভ্রান্ত মুলক।

আর কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে পরিষ্কার জানিয়ে দেওয়া হয়েছে এই ধরনের ভুয়ো খবর কোন মতে বরদাস্ত করবে না কেন্দ্র। অন্যদিকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে এক বিবৃতিতে জারি করে বলা হয়েছে যে গত ছয়দিনে কাশ্মীরে কোন প্রকার অশান্তি হয়নি।এই ধরনের যদি কোন ভুল খবর প্রকাশিত করা হয় তাহলে সেই সংবাদমাধ্যমকে কড়া আইনি শাস্তির মুখে পড়তে হবে বলে জানানো হয়েছে। আর এরই মধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে বেশ কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমকে এই উদ্দেশ্যে নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দাবি এরকমভাবে ভুয়ো খবর প্রকাশিত হওয়ার ফলে কাশ্মীর উপত্যকায় নতুন করে অশান্তি তৈরি হতে পারে যার দরুন আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে এই সংবাদ মাধ্যমগুলিকে। কয়েকটি সংবাদমাধ্যম বলেছিল শুক্রবার থেকে প্রায় দশ হাজার লোকের জমায়েত হয় কাশ্মীরে। আর সেখান থেকেই পুলিশের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেওয়া হয়। পাল্টা পুলিশ টিয়ার গ্যাসের শেল ফাটায় ও পেলেট গান ব্যবহার করে৷ তবে আপনাদের বলে রাখি এই তথ্য সম্পূর্ণ মিথ্যা বলে জানানো হচ্ছে পুলিশের পক্ষ থেকে৷ অন্যদিকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে জানানো হয় কিছু বিক্ষিপ্ত বিক্ষোভ ঘটনা ঘটলেও মোটেও তা কাশ্মীরের শান্তিপূর্ণ পরিস্থিতিকে আঘাত করেনি। অহেতুক কিছু সংবাদ মাধ্যম উত্তেজনা তৈরি করার চেষ্টা করছে।


অন্যদিকে পুলিশের দাবি কোন বিক্ষোভ জামায়াতে কুড়ি জনের বেশি লোক ছিল না। ঠিক সেই একই তথ্য দিয়েছে সেনা ও। বারামুল্লা ও শ্রীনগরে কিছু বিক্ষোভ হলেও, তা আয়ত্বের মধ্যেই ছিল বলে জানিয়েছে সেনা।