লক্ষ্য বিশ্বের এক নম্বর ধনী ব্যক্তি হওয়া, অম্বুজা ও ACC অধিগ্রহণের Adani সিমেন্টকে এক নম্বর বানানোর টার্গেট কর্ণধারের

অর্থের দিক থেকে বিচার করলে মুকেশ আম্বানির থেকে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছেন গৌতম আদানি। এবার নিজের ব্যবসা আরো কিছুটা বাড়ানোর জন্য অম্বুজা সিমেন্ট এবং ACC – কে 6.5 মিলিয়ন মার্কিন ডলারের অধিক গ্রহণ করতে চলেছে আদানি গোষ্ঠী। আর কয়েক দিনের মধ্যেই এই সিদ্ধান্ত নিয়ে নেবেন গৌতম আদানি। নিজের এই ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, আদানি গোষ্ঠী এবার সিমেন্ট উৎপাদন ক্ষমতা দ্বিগুণ করবে। দেশের সবথেকে লাভজনক সিমেন্ট প্রস্তুতকারক হওয়ার পরিকল্পনা নিচ্ছি আমরা।

তিনি এও জানিয়েছেন, ভারতের সিমেন্টের চাহিদা বহুগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। দেশের পরিকাঠামো যত তাড়াতাড়ি উন্নত হবে তত তাড়াতাড়ি সিমেন্টের ব্যবসা বাড়বে। গত ১৭ সেপ্টেম্বর এসএসসি এবং অম্বুজা অধিগ্রহণের সমাপ্তি উপলক্ষে একটি ইভেন্টের আয়োজন করা হয় যেখানে বক্তৃতা দেবার সময় গৌতম বাবু বলেন এই আগামী পরিকল্পনার কথা।

কিন্তু হঠাৎ সিমেন্ট ব্যবসাতে আগ্রহ দেখালেন কেন তিনি? এই প্রসঙ্গে গৌতম আদানি বলেন, ভারত বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম সিমেন্ট উৎপাদনকারী। ভারতের জনসংখ্যা তুলনায় উৎপাদন এখনো অনেকটাই কম। মাথাপিছু যদি ধরা হয় তাহলে ২৫০ কেজি সিমেন্ট উৎপাদন হয় ভারতবর্ষে। অন্যদিকে চিনে মাথাপিছু ১৬০০ কেজির মত সিমেন্ট উৎপাদন হয় প্রতি বছরে। বোঝাই যাচ্ছে এখনো প্রায় সাত গুণ উৎপাদন বৃদ্ধি করার সুযোগ রয়েছে ভারতের।

তিনি বলেন, বিভিন্ন সরকারি কর্মসূচি চালু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সিমেন্টের চাহিদা বেড়ে যাবে। এই সেক্টরে দীর্ঘমেয়াদি জিডিপি গড়ে ১.২ থেকে ১.৫ গুণ বৃদ্ধি পাবে। আমরা এই সংখ্যারও দ্বিগুণ হারে বৃদ্ধির আশা রাখছি। অধিগ্রহণের পর বর্তমানে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সিমেন্ট প্রস্তুতকারী সংস্থা আদানি গোষ্ঠী। এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি এক নম্বরের রয়েছে আলট্রাটেক সিমেন্ট।