যাত্রীদের জন্য বেরিয়ে এলো সুখবর! আরও নতুন স্পেশাল ট্রেন আনতে চলেছে ভারতীয় রেল, থাকছে তৎকাল টিকিট বুকিং এর সুবিধা..

দেশজুড়ে করোনা সংক্রমণ রোধে জারি করা হয়েছিল লকডাউন, আর এই লকডাউনের জেরে বন্ধ ছিল রেল পরিবহন ব্যবস্থা। শুধুমাত্র রেলের ক্ষেত্রে খোলা ছিল মালবাহী ট্রেন গুলি ও দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আটকা পড়া শ্রমিকদের জন্য খোলা হয়েছিল শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন যার মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আটকে পড়া শ্রমিকদের ঘরে পৌঁছে দেওয়া হয়েছিল। তবে এবার যে খবরটি বেরিয়ে আসছে সেটি সাধারণ মানুষের কাছে খুশির খবর হতে পারে কারণ ভারতীয় রেলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে তারা খুব দ্রুত আরো কয়েকটি তৎকাল ট্রেন চালু করতে চলেছে।

ভারতীয় রেলের তরফ থেকে রেল মন্ত্রকের কাছে নিজেদের এই প্রস্তাবের তথ্য বিস্তারিত ভাবে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। রেলমন্ত্রকের এই প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের কাছেও। এই ট্রেন চালানোর যোজনা দ্রুত কার্যকরী করার জন্য পদক্ষেপ নিচ্ছে। এই যোজনায় আরো বেশি যাত্রীদের নিজেদের গন্তব্যে পৌঁছে দিতেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। তবে শুধু তাই নয় এক্ষেত্রে রেলওয়ে স্টেশন গুলিতে যাতে সকল যাত্রীদের সঠিক স্ক্যানিং করা হয় তার জন্যও উপযোগী পরিকাঠামো তৈরি করে ফেলা হয়েছে। গভীর ভাবে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে তাছাড়া ট্রেনের স্টপেজ ও ভাড়া নিয়ে আলোচনা করা হচ্ছে।

তবে এক্ষেত্রে কোনো যাত্রীদের যদি ট্রাভেল করতে হয় তাহলে সে সকল যাত্রীদের কিন্তু 90 মিনিট আগে স্টেশনে পৌঁছাতে হবে। যাতে এক্ষেত্রে যাত্রীদের বডি স্ক্যান করা যায়। তাছাড়া করোনা সংক্রমনের জেরে স্টেশন ও ট্রেনের স্যানিটাইজেশনের ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। তবে এক্ষেত্রে বলে রাখি এই বিশেষ ট্রেনগুলোর জন্য 120 দিন আগে টিকিট বুকিং করা হবে তাছাড়াও এই ট্রেনে রয়েছে তৎকাল টিকিট বুকিং এর সুবিধা।রেলওয়ে বোর্ডের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ থেকে মুম্বাই, উত্তরপ্রদেশ ট্রেনের সঙ্গে বিহার থেকে মুম্বাই ট্রেন যাত্রীর সংখ্যাও রোজ বাড়ছে।

তাছাড়া দেশও ধীরে ধীরে অর্থনৈতিক কাজকর্মের যে পাশাপাশি করোনা সংক্রমণ যাতে সীমার মধ্যে রাখা যায় তার ওপরও নজরদারি রাখা হচ্ছে। আগামী 10 দিনের মধ্যে আরও কিছু ট্রেনের নাম ঘোষণা করা হবে।তবে সূত্রের খবর অনুযায়ী রেল মন্ত্রকের তরফ থেকে এই বিশেষ ট্রেনগুলোকে যে রুটগুলোতে চালানোর জন্য ভাবনা চিন্তা করছেন সেগুলির মধ্যে নাম রয়েছে দিল্লি- অমৃতসর, চন্ডিগড় পুরনো দিল্লি, কামাখ্যা-গোরাখপুর- দিল্লি, দিল্লি- ভাগলপুর, ডিব্রুগড়, ইন্দোর, লখনও, যোধপুর-দিল্লি। প্রসঙ্গত এই মুহূর্তে সারাদেশে ভারতীয় রেলের 230 টি স্পেশাল ট্রেন চলছে।