নদীতে ঝাঁপ দিয়ে কাশ্মীরি কিশোরীর প্রাণরক্ষা, সিআরপিএফ জওয়ানদের প্রশংসা নেটদুনিয়ায়…

দেশ রক্ষার্থে জওয়ানদের কীর্তি যতটাই বলা যায় ততটাই কম তাদের জন্য। জওয়ানেরা দেশ রক্ষার খাতিরে তাদের নিজের জীবনকে উৎসর্গ করে দেয় সবসময়। আর সেই জওয়ানদের আরো এক বীরত্বের সাক্ষী থাকল দেশ। নিজেদের প্রাণের তোয়াক্কা না করে এক ডুবন্ত কিশোরীকে বাঁচাতে খরস্রোতা নদীতে ঝাঁপ দিলেন একদল জওয়ানেরা।আর তারপরই সাহসীকতা ও কর্তব্যপরায়ণতার নজির সৃষ্টি করলেন সিআরপি এফ এর এই এক দল জওয়ান। আর মুহূর্তের মধ্যে সেই ভিডিও ভাইরাল হয়ে গেল সোশ্যাল মিডিয়াতেও। এই ঘটনাটি ঘটেছে কাশ্মীরের বারামুল্লা জেলার প্রত্যন্ত্য এলাকার।অন্যান্য দিনের মতোই পাহাড়ি নদীতে কাপড় কাচতে গিয়েছিল বছর আঠেরোর নাগিনা। হঠাত্ই পাথর থেকে তার পা পিছলে জলে পড়ে যায় সে।

আর তারপরই জলের প্রবল ঢেউ এর আর পাথরের ধাক্কা খেতে খেতে সে এগোতে থাকে আগে।অনেক চেষ্টা করেও পারের দিকে যেতে পারছিল না নাগিনা।খরস্রোতা পাহাড়ি নদীতে আর একটু হলেই মৃত্যু অনিবার্য ছিল তার। সেই সময় এই ঘটনাটি চোখে পড়ে নদীর ধারে কর্তব্যরত কয়েকজন জওয়ানের। তাঁরা মুহূর্ত মাত্র দেরি না করে নদীর পার ধরে ছুটতে শুরু করেন। কিছু দূর গিয়েই নদীতে ঝাঁপ দেন। নিজেদের প্রাণ তুচ্ছ করে নাগিনাকে বাঁচালেন জওয়ানরা। আর তারপর তাঁরা নাগিনা কে উদ্ধার করে সেখানে থাকা স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যান। এখন আপাতত সুস্থ আছে নাগিনা। তবে সেই মুহূর্তেই জওয়ানেরা না থাকলে তার কী যে হতো তা ভেবে শিউরে উঠেছে নাগিনা।

নাগিনাকে বাঁচানোর জন্য জওয়ানদের কাছে কৃতজ্ঞতা স্বীকার করেছে নাগিনার পরিবার। জবাবে এক জওয়ান উত্তর দেন নদীর পাশে ডিউটি করছিলাম আমরা হঠাৎ এক চিৎকার শুনে দেখি নদীতে ভেসে যাচ্ছে একটা মেয়ে। আমরা আমাদের কর্তব্যই করেছি মাত্র।

Related Articles

Close