আবারও এক মানবতার নজির গড়লেন গৌতম গাম্ভীর! অসুস্থ পাকিস্তানি শিশুকে ভারতে আনার ব্যবস্থা করে দিলেন..

গৌতম গম্ভীর একজন ভালো ক্রিকেটার এর পাশাপাশি যে একজন ভালো মানুষ তা আমরা এর আগে বহুবার প্রমাণ পেয়েছি। তিনি আবারো প্রমান করে দিলেন যে দরিদ্র মানুষদের জন্য তিনি এগোতে দুবার ভাবেন না। এমনকি দেশসেবার কাজও তিনি বহুবার অংশগ্রহণ করেছেন। গৌতম গম্ভীর বর্তমানে একজন প্রাক্তন ক্রিকেটারের পাশাপাশি তিনি একজন বিজেপির সাংসদ। এর আগে তিনি একশটি বাচ্চার জন্য সমস্ত পড়াশুনার জন্য খরচ ব্যয় করেছেন। এই বাচ্চারা প্রত্যেকের দেশের জন্য বলিদান দেওয়া শহীদ জাওয়ানদের সন্তান।

গত রবিবার তিনি টুইট করে লিখেন, তার গৌতম গম্ভীর ফাউন্ডেশন শহীদদের 100 টি শিশুকে দেখাশুনা করবে। এই কাজের জন্য তিনি নিজেকে গর্বিত বলেও প্রকাশ করেন। আর এবারো আরো একবার সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার তথা বিজেপি সাংসদ গৌতম গম্ভীর। অবাক হওয়ার বিষয় হলো এবারে কোন ভারতীয় কে নয় পাকিস্তানী একটি মেয়েকে তিনি সাহায্য করেন। পাকিস্তানের নেতা থেকে শুরু করে পাক জনসাধারণ সবসময়ই ভারতের নিন্দা করতে থাকে।

কিন্তু এবার গৌতম গম্ভীর যা করলেন তাতে ভারতের বিরুদ্ধে নিন্দুকেদের মুখে ঝামা ঘষে দিয়ে মানবিকতার অন্য পর্যায়ে পৌঁছে গেলেন তিনি। গৌতম গম্ভীর পাকিস্তানের ওমাইমা আলীর চিকিৎসার সমস্ত দায়িত্ব নিলেন। গৌতম গম্ভীর নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে একটি ছবি পোস্ট করেন, যেখানে ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের কাছে আলীর হৃদ রোগের চিকিৎসার জন্য তার এবং তার পরিবারের ভিসা মঞ্জুর করার আবেদন করেন।

এমনকি উনি নিজেই ওই চিঠিতে ওমাইমা এবং তার পরিবারকে ভারতের ভিসা দেওয়ার জন্য আবেদন জানান এবং বিদেশমন্ত্রীর সহায়তায় গৌতম গম্ভীর ওই মেয়েটিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়। এর আগে আসামের শহীদ জাওয়ানদের সন্তানের লালন পালন করার সমস্ত খরচা বহন করেন গৌতম গম্ভীর। শুধু এইটি নয় তিনি আসামের সিআরপিএফ জাওয়ান দিবাকর দাসের পাঁচ বছরের ছেলের সমস্ত পড়াশোনার খরচ এবং অন্যান্য খরচ চালানোর দায়িত্ব নেন। আমরা অনেকেই জানি গত বছর দিবাকর দাস একটি হামলায় শহীদ হয়েছিলেন। বাবার মৃত্যুর পরে অভিরুন দাস তার নিজের গ্রামেই থাকতেন।


গম্ভীর তার নিজের এনজিও গৌতম গম্ভীর ফাউন্ডেশন থেকে অভিরুনের সমস্ত পড়াশোনার খরচ সহ অন্যান্য ব্যয়ভার চালায়। একাধিকবার আমরা গৌতম গম্ভীরকে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সমালোচনা করতে দেখে এসেছি। পাকিস্তানের নীতি নিয়ে গৌতম গম্ভীর বারবার বিরোধিতা করে এসেছেন। কিন্তু তিনি আবার প্রমাণ করে দিলেন যে তিনি পাকিস্তানের নীতির উপর বিরোধিতা করলেও পাকিস্তানের নিরীহ মানুষের প্রতি তিনি সহানুভূতিশীল।