BCCI এর বড় ঘোষণা, উপকৃত হতে চলেছেন ৯০০ জন খেলোয়াড়, অবসরপ্রাপ্ত খেলোয়াড়দের পেনশন করা হল দ্বিগুণ

অবসরপ্রাপ্ত ক্রিকেটারদের মাসিক পেনশন ১০০ শতাংশ বাড়ানোর ঘোষণা করেছে বিসিসিআই। এতে ৯০০ জন মহিলা ও পুরুষ ক্রিকেটারের পাশাপাশি ম্যাচ অফিসিয়ালরাও উপকৃত হবেন। এমনটাই জানিয়েছেন বিসিসিআই সেক্রেটারি জে শাহ। ২০০৪ সালে বিসিসিআই প্রথম অবসরপ্রাপ্ত ক্রিকেটারদের পেনশন দেওয়া শুরু করে। ১৯৯৩ সালের ৩১শে ডিসেম্বরের আগে অবসর নেওয়া সমস্ত ক্রিকেটারকে এই পেনশন স্কিমে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল।

যেসব খেলোয়াড় পেনশন হিসেবে ১৫ হাজার টাকা পেতেন, তাঁরা এখন পাবেন ৩০ হাজার টাকা। একই সঙ্গে পেনশন হিসেবে ২২,৫০০ টাকা পাওয়া প্রাক্তন ক্রিকেটাররা মাসিক ৪৫,০০০ টাকা পাবেন। যে সকল প্রাক্তন খেলোয়াড়রা ৩০,০০০ টাকা পেনশন পেতেন, তাঁরা পাবেন ৫২,৫০০ টাকা। যে সকল খেলোয়াড়রা ৩৭,৫০০ টাকা পেতেন, তাঁরা পাবেন ৬০,০০০ টাকা এবং যে সকল খেলোয়াড়রা ৫০,০০০ টাকা পেতেন, তাঁরা পাবেন ৭০,০০০ টাকা মাসিক পেনশন।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের পরবর্তী পাঁচটি মরসুমের অর্থাৎ ২০২৩ সাল থেকে ২০২৭ সালের মিডিয়া অধিকারের নিলাম বিসিসিআইকে সমৃদ্ধ করেছে। ভারতীয় উপমহাদেশের জন্য টিভি স্বত্ব বিক্রি হয়েছে ম্যাচ প্রতি ৫৭.৫ কোটি টাকায় এবং ডিজিটাল অধিকার প্রতি ম্যাচে ৫০ কোটি টাকায়। তাদের মোট বিড ৪৪,০৭৫ কোটি টাকা। এই খবর সামনে আসার পরই জয় শাহ তাঁর প্রাক্তন খেলোয়াড়দের জন্য এত বড় ঘোষণা করেছেন।

এর আগে বিসিসিআই ২০১৫ সালে প্রাক্তন দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক খেলোয়াড়দের জন্য মাসিক ভাতা বৃদ্ধির ঘোষণা করেছিল। এতে পুরুষ ও মহিলা উভয় খেলোয়াড়ই উপকৃত হয়েছিলেন। এর অধীনে ২৫টি ম্যাচ খেলে এবং ১৯৯৩ সালের ৩১শে ডিসেম্বরের আগে অবসর নেওয়া টেস্ট ক্রিকেটাররা প্রতি মাসে ৫০,০০০ টাকা পেতেন। একই সঙ্গে ১৯৯৩ সালের পর অবসর নেওয়া খেলোয়াড়রা পেতেন ৩৭,০০০ টাকা।