ভারতে প্রথম সুপার স্পেশালিটি করোনা-হাসপাতাল তৈরি করল রিলায়েন্স…

যত দিন যাচ্ছে করোনা ভারতের ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করছে, দেশে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। সোমবার রাত্রি দশটা পর্যন্ত এই ভাইরাসের দরুন আক্রান্তের  সংখ্যা গিয়ে দাঁড়িয়েছে  467 জন। যার মধ্যে মহারাষ্ট্র ও কেরলে আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। এই মুহূর্তে মহারাষ্ট্রে এই ভাইরাসের দরুণ আক্রান্তের সংখ্যা 71 ও কেরলে সংখ্যাটি হল 60 । কর্ণটক ও উত্তরপ্রদেশ রয়েছে তিনিশোর কোটায়। আর গত তিন দিনে সবচেয়ে বেশি মানুষের শরীরে করনা সংক্রমণ ধরা পড়লো ভারতে।

তবে আজকে আমরা যে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে চলেছি সেটি কিছুটা হলেও দেশের মানুষকে এরকম এক সঙ্কটজনক পরিস্থিতিতে সাহায্য করবে। দেশে এরকম এক সঙ্কটজনক পরিস্থিতিতে লড়াইয়ে এগিয়ে এলেন রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ চেয়ারম্যান মুকেশ আম্বানি। রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রি তরফ থেকে শুধুমাত্র এই করোনা সংক্রমণের চিকিৎসা জন্য তৈরি করা হল রিলায়েন্সের করোনা হাসপাতাল। দেশে প্রথম এই করোনা হাসপাতালটি তৈরি করতে সময় লেগেছে মাত্র দু’সপ্তাহ।

এক্ষেত্রে রিলায়েন্স ফাউন্ডেশন ও মুম্বাই মিনিসিপালটি কর্পোরেশনের  অর্থাৎ BMC এর সাথে 100 টি বেডের এই হাসপাতাল সেটাপ করেছে। এটি মুম্বাইয়ের সেভেন হিলস হাসপাতাল যেখানে করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা করা হবে। এক্ষেত্রে এটা দেশের প্রথম হাসপাতাল যেখানে করোনা আক্রান্তদের সম্পূর্ণ খরচ চালানো হবে রিলায়েন্স ফাউন্ডেশন এর তরফ থেকে। এর পাশাপাশি ইনফেকশনকে আটকানোর জন্য এই হাসপাতাল এ নেগেটিভ প্রেসার রুম বানানো হয়েছে। আর হাসপাতালে প্রত্যেকটি বেডে রয়েছে বায়োমেডিকেল ইকুয়েপমেন্ট এর সুবিধা।

ভেন্টিলেটর, পেসমেকার ডায়ালিসিস মেশিন আর মনিটরিং ডিভাইস থাকবে তাদের জন্য বিশেষ সুবিধা দিচ্ছে যারা করোনা ভাইরাস প্রভাবিত দেশ থেকে এসেছে আর তাঁদের কোয়ারান্টিনে রাখা অতি আবশ্যক রয়েছে। গতকাল সোমবার দিন মুম্বাই উদ্বোধন করা হলো রিলায়েন্স করোনা হাসপাতালে মাত্র দুই সপ্তাহের মধ্যে তৈরি এই করোনা চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় পরিকাঠামোর ব্যবস্থা রয়েছে এই হাসপাতালে।আর বর্তমানে একসঙ্গে 100 জন করোনা আক্রান্ত ট্রিটমেন্ট করা যাবে এই হাসপাতালে। এই হাসপাতালটি মহারাষ্ট্রের লোধিভালিতে আইসোলেশন তৈরি করেছে রিলায়েন্স।

রিলায়েন্স লাইফ সায়েন্স করোনা টেস্টিং এর জন্য অতিরিক্ত কিডস আনার ব্যবস্থা করছে এর পাশাপাশি রিলায়েন্স লাইফ সাইন্স এর ডাক্তার এবং রিসার্চাররা লাগাতার এই মারাত্মক ভাইরাস থেকে বাঁচার জন্য চিকিৎসা খুঁজছেন।এবং রিলায়েন্স এর তরফ থেকে জানানো হয়েছে তারা স্পেকমেকার বানানোর ক্ষমতা বাড়িয়ে এক লক্ষ প্রতিদিন করতে চলেছে। তার পাশাপাশি কোম্পানি অন্য প্রটেক্টিভ ইকুয়েপমেন্ট ও তৈরি করছে। তবে রিলায়েন্স এর তরফ থেকে তৈরি করা এই হাসপাতলে আরো একটি বিশেষত্ব হলো এখানে শুধু অসুস্থ ব্যক্তিদের জন্যেই নয় সারাদেশে যেসব  চিকিৎসক-নার্স- স্বাস্থ্যকর্মী যারা করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে প্রতিনিয়ত লড়াই করে যাচ্ছে তাদের জন্য উদ্যোগী রয়েছে রিলায়েন্স। এর পাশাপাশি প্রতিদিন 10 লক্ষ ফেস মাস্ক তৈরির সংকল্প নিয়েছে এই সংস্থা ৷ একইসঙ্গে এমন সঙ্কটজনক পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের সাহায্যে বিনামূল্যে দুবেলা খাবার এবং ফ্রি ফুয়েল সরবরাহের মতো একগুচ্ছ সুবিধা দেওয়ার কথাও এদিন জানিয়েছে রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিস চেয়ারম্যান মুকেশ আম্বানি ৷

Related Articles

Close