দেশনতুন খবররাজনৈতিকরাজ্য

“ফুটবে এবার পদ্মফুল বাংলা ছাড়ো তৃণমূল”- এই গানটি কে নিয়ে বাবুলকে শোকজ করল নির্বাচন কমিশন…

বাংলায় বিজেপির জন্য থিম সং তৈরি করেছেন আসানসোলের বিজেপির সাংসদ নেতা বাবুল সুপ্রিয়।আর সেই নিয়ে আসানসোল সংসদ বাবুল সুপ্রিয়কে শোকজ করল নির্বাচন কমিশন। এখন তাহলে বিরুদ্ধে নির্বাচনী বিধি ভঙ্গের অভিযোগ আনা হয়েছে। এই অভিযোগে বলা হয়েছে মিডিয়ায় সার্টিফিকেশন ছাড়া তিনি কিভাবে সোশ্যাল মিডিয়াতে বিজেপির থিং সং ছেড়েছেন সেই নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে তার বিরুদ্ধে। গত রবিবার দিন দেখতে পাওয়া যায় মুম্বাইয়ের একটি স্টুডিওতে তিনি এই গানের রেকর্ডিং করছিলেন। এই গানের মূল কথা হলো ফুটবে এবার পদ্মফুল, বাংলা ছাড়ো তৃণমূল।


আর এই গানের মধ্যে তৃণমূল বিরোধী প্রায় সব স্লোগানই ব্যবহার করা হয়েছে। কটাক্ষ করা হয়েছে দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তার অনুগামীদের এই গানের মধ্য দিয়ে। তাই এই থিম সংটি কে নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্কের, কারণ এই গানের মধ্যে ব্যবহৃত করা হয়েছে অনেক তৃণমূল বিরোধী স্লোগান। এই শ্লোগান গুলি আগে বামেরা ব্যবহার করে থাকতো।এই শ্লোগান গুলি তারা 2013 সাল থেকে ব্যবহার করে আসছে।এমনকি নভেম্বর মাসের শেষের দিকে কলকাতায় বামেদের মিছিলে শোনা গিয়েছিল চোর গুন্ডা দেশ চালায়, পুলিশ লুকায় টেবিলের তলায়। আর তার সাথে শোনা গিয়েছিল এই স্লোগানটি এই তৃণমূল আর না। তৃণমূল কংগ্রেস কে নিয়ে গাওয়া এই গান কে নিয়ে বাবুল সুপ্রিয়র বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।এই নিয়ে আসানসোল দক্ষিণ থানায় এফআইআর দায়ের করেন পশ্চিম বর্ধমান স্টুডেন্ট লাইব্রেরী কোঅর্ডিনেশন কমিটি। এই দিন এই ব্যাপারে এই কমিটির সভা নেত্রী কে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান বাবুলের বিরুদ্ধে এফআইআর করা হয়েছে।কারণ প্রচারের জন্য তিনি যে গানটি ব্যবহার করছেন সেটি রুচিহীন।

তৃণমূল কংগ্রেসের দলীয় নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে অপমান করা হচ্ছে এই গানের মধ্য দিয়ে। শুধু এই নয় তিনি আরো বলেন একজন সাংসদ হিসাবে ওনার আরো সংবেদনশীল হওয়া উচিত ছিল এইভাবে ব্যঙ্গ করে উনি গান গাইতে পারেন কিন্তু কাউকে অপমান করার অধিকার ওনার নেই। এছাড়া উনি আরো বলেন আমরা একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা।আর আমরা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে সমর্থন করি।এর আগে রিয়া মাইতি যিনি সিপিএমের যুব সংগঠনের নেত্রী তার মুখে সেই শ্লোগানে ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল। বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর রাজা নিয়েছিলেন সেই শ্লোগানগুলো তার নিজের লেখা নয় হলদিয়ার এক কমরেড এই স্লোগান লিখে দিয়েছিলেন বলে জানিয়েছিলেন তিনি। আর বামেদের ব্যবহৃত এই শ্লোগানকে নিয়ে এবার গান লিখে ফেলেছেন বিজেপি গায়ক-সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়।

তাঁর তত্ত্বাবিধানেই গানটি লিখেছেন অমিত চক্রবর্তী। কন্ঠ অবশ্য বাবুল সুপ্রিয়ের। যা নিয়ে শুরু হয়ে গিয়েছিল বিতর্ক। বামেদের পাশাপাশি তৃণমূল কংগ্রেস অনুগামীরাও বিজেপিকে কটাক্ষ করতে শুরু করে দিয়েছে।

Related Articles

Back to top button