আরো জাঁকিয়ে পড়তে চলেছে শীত, সরস্বতী পুজোর আগেই বৃষ্টির প্রবল সম্ভাবনা, ভস্তে যেতে পারে বাঙালির ভ্যালেন্টাইন ডে

এবার বাঙালির ভ্যালেন্টাইন্স ডে তে বাধ সাধতে চলেছে বা বলা চলে ভেস্তে যেতে চলেছে বাঙালির এই স্পেশাল দিনটি। এমন কথাই জানালো আবহাওয়া অফিস।সপ্তাহের শেষে বৃষ্টির সম্ভাবনা বলে জানিয়েছেন, এদিন সপ্তাহের শেষ মানেই বাঙালি মরতে চলেছে। সরস্বতী পুজোর আনন্দে এক কথায় বাঙালি ভালেন্টাইনস ডে বলা চলে।

আগামী শনিবার বাগদেবীর আরাধনার প্রত্যেকেই মাততে চলেছে, তাই তার আগেই সতর্কতা দিল আবহাওয়া অফিস। যা সবার মনে দুঃখই দেবে, কারণ গত দু’দিন এই তাপমাত্রার ইতিমধ্যে ৫ ডিগ্রিও বেশি নেবে গেছে। তার সাথে উত্তুরে হওয়া যে কারণে সপ্তাহের শেষে জাঁকিয়ে শীত পড়তে চলেছে।

কিন্তু বাঙালির এই দিনটিকে বাঙালি সেলিব্রেট করে চূড়ান্ত লেভেলে, নতুন শাড়ি, নতুন পাঞ্জাবিতে সেজে ওঠে কচিকাঁচা সহ যুবক যুবতীরাও। গতবছর মুখে মাক্স পড়েও তবু কেউ আনন্দ করতে ভোলেননি, তবে এ বছর যদি বৃষ্টি হয় তাহলে বলা যেতে পারে একপ্রকার ভেস্তে যেতে চলেছে। বাঙালির এই দিনটি কলকাতায় এখন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস, সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২১.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এমনকি বাতাসে জলীয়বাষ্পের পরিমাণ রয়েছে ৮৯%, আগামী শুক্রবার থেকে রয়েছে বৃষ্টির সম্ভাবনা, তার আগে পর্যন্ত থাকবে মেঘমুক্ত আকাশ। তবে রাতের তাপমাত্রা স্বাভাবিকের থেকে নিচেই থাকবে। শনি ও রবিবার প্রবল শীত পড়ারও সম্ভাবনা আছে, তাঁর স্থায়িত্ব থাকবে মঙ্গলবার পর্যন্ত, অপরদিকে উত্তরবঙ্গ থাকবে মেঘমুক্ত আকাশ। তবে তাপমাত্রা থাকবে অনেকটাই কম, তবে মঙ্গলবার থেকে তাপমাত্রা বাড়বে এবং বৃহস্পতিবার থেকে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে দার্জিলিং কালিম্পংয়েও।

অপরদিকে নতুনভাবে পশ্চিমী ঝঞ্জা ঢুকছে আবার ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহেও। আরো একটি পশ্চিমী ঝঞ্জা ঢোকার সম্ভাবনা রয়েছে, যার ফলে ২১শে ফেব্রুয়ারি বড়োসড়ো আবহাওয়া পরিবর্তন লক্ষ্য করা যাবে। ইতিমধ্যেই তামিলনাড়ুর উপর রয়েছে একটি পূর্ণ পাঞ্জাব, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ, দিল্লি রাজস্থান প্রভৃতি শহরগুলিতে শৈত্যপ্রবাহের সর্তকতা দেয়া হয়েছে কিন্তু শেষ পর্যন্ত কি হতে চলেছে তা সময় অপেক্ষা।