ব্রেকিংঃ দেশজুড়ে আরো তীব্র হবে কৃষক আন্দোলন, আগামী শনিবার দিন দেশজুড়ে চাক্কা জ্যামের রাস্তায় হাঁটবে কৃষকেরা

দেশজুড়ে ক্রমশ তীব্র হচ্ছে কৃষক আন্দোলন। আর আজ এই করোনা কালের মধ্যেই 2021 এর অর্থবছরের প্রথম সাধারণ বাজেট পেশ করলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। তবে বাজেট আসার পরও কৃষকদের যে দাবী, সেই দাবিতে তারা অনড় রইল, কৃষকদের একটাই দাবি কেন্দ্রের আনা তিনটি কৃষি আইনকে পুরোপুরিভাবে বাতিল করতে হবে আর সেই দাবিকেই সামনে রেখে আগামী শনিবার দিন 6 ই ফেব্রুয়ারি দেশজুড়ে চাক্কা জামের রাস্তায় হাঁটতে চলেছে কৃষকেরা।

 

প্রাপ্ত খবর অনুযায়ী জানতে পারা যাচ্ছে আগামী শনিবার দিন 6 ফেব্রুয়ারি দুপুর 12 টা থেকে টানা বিকেল তিনটে অব্দি দেশের রাস্তা অবরোধ করতে চলেছে আন্দোলনরত কৃষকেরা। নতুন যে কৃষি আইন তার বিরুদ্ধে দিল্লি সীমান্তে কৃষকদের বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে আর এরই মধ্যে কিষান মোর্চা আগামী 6 ফেব্রুয়ারি সারা দেশজুড়ে চাক্কা জামের কথা ঘোষণা করেছে। গত কয়েক মাস ধরে কৃষকেরা লাগাতার আন্দোলন করে চলেছে তাছাড়া গত 26 শে জানুয়ারি দিল্লিতে কৃষক সংগঠনের ট্রাক্টর রেলি দেখা গিয়েছিল, যা ঘিরে একাধিক অশান্তি সৃষ্টি হয়েছিল।

তারপর আবার 30 শে জানুয়ারি মহাত্মা গান্ধীর প্রয়াণ দিবসে এক দিনব্যাপী অনশন পালন করেছে কৃষকেরা। অন্যদিকে পাঞ্জাব পঞ্চায়েতগুলির তরফ থেকে প্রত্যেকটি বাড়ি থেকে অন্ততপক্ষে একজনকে এই বিক্ষোভে শামিল হবার কথা জানানো হয়েছে, আর তা না হলে সেই বাড়িতে জরিমানা করা হবে একথাও জানানো হয়েছে। সুবিধার্থে বলে রাখি গত পয়লা অক্টোবর থেকে শুরু হয়েছিল এই কৃষক আন্দোলন।

রেললাইন, কয়েকজন বিজেপি নেতার বাড়ির সামনে এবং টোলপ্লাজা কে আটক করে বিক্ষোভের সূচনা হয়েছিল তারপর থেকে এই বিক্ষোভের পারদ ক্রমশ চড়তে থাকে। অপরদিকে সরকারের তরফ থেকে এই কৃষি আইন বিরোধী প্রচার রুখতে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে যেখানে একাধিক জেলাতে বন্ধ রাখা হয়েছে ইন্টারনেট পরিষেবা। হরিয়ানা সরকার দিল্লি লাগোয়া 17 টি জেলার মধ্যে আপাতত ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রেখেছে। তবে কৃষকেরাও পাল্টা চাপ দিতে শুরু করেছে এবংকৃষি আইনের বিরোধিতা করে দেওয়ার ভাষণ যাতে বিভিন্ন এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে তার জন্য বেছে নিয়েছে মন্দির মসজিদের মাইক গুলিকে।