‘বেশি বাড়াবাড়ি করলে পরমাণু বোমা দিয়ে উড়িয়ে দেবো’ জাপানের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক স্বীকারোক্তি চীনের

বর্তমান করোনা মহামারীর ফলে দুর্বিষহ গোটা বিশ্ব। কোটি কোটি মানুষকে কেড়ে নিয়ে গেছে এই মহামারী। এখন করোনার দ্বিতীয় ঢেউ চলছে কয়েকটি দেশে। আবার কয়েকটি দেশে করোনার তৃতীয় কেউ প্রবেশ করেছে। এই পরিস্থিতির জন্য মোটামুটি গোটা বিশ্ব চীনের উপর ক্ষুব্ধ। চীনের উহান প্রদেশ থেকেই নাকি করোনা ছড়িয়ে পড়েছে গোটা বিশ্বে যার প্রমাণ ও মিলেছে। এরই মধ্যে চিন এবারে জাপানকে কড়া ভাষায় হুঁশিয়ারি দিল। চীনের কমিউনিস্ট পার্টি সিসিপি এর একটি নতুন ভিডিও বার্তায় দেখা গেছে জাপানের উদ্দেশ্যে চীনের বার্তা।

জাপান যদি তাইওয়ানকে সাহায্য করে তাহলে পরমাণু বোমায় দ্বারা তার জবাব দেওয়া হবে। এই ধরণের মন্তব্য চীনের মুখ থেকে শুনে গোটা বিশ্ব প্রায় হতবাক। আন্তর্জাতিক মঞ্চে পরমাণু বোমা ব্যবহার থেকে সবসময় বিরত থাকতে বলা চীনের মুখে এমন হুমকিতে বিম্মিত সকলে।

ভিডিও থেকে জানা যায়, চীন বলেছে জাপান আত্মসমর্পণ না করলে ভয়ানক ভাবে লাগাতার পরমাণু হামলা করবে চীন। তবে তাইওয়ান নিউজের দাবি, চীনের একটি সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে এই হুমকির ভিডিও পোস্ট করা হয়, তারপর সেটি রাতারাতি ভাইরাল হয়ে ২ মিলিয়ন ভিউজ হবার পর সেটিকে চীন ডিলিট করে দেয়। কিন্তু ততক্ষণে এই ভিডিয়োর কপি ইউটিউব এবং টুইটারে আপলোড করা হয়ে গিয়েছে। এই ধরণের কাজ কেন করলো চীন সেই বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছে তাইওয়ান নিউজ।

এই বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে গত কয়েকদিন আগে। জাপানের উপ প্রধানমন্ত্রী টারো আশো, বলেন আমেরিকা ও জাপানের একসঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে তাইওয়ানের স্বতন্ত্রতা রক্ষা করবেন। তাইওয়ানে কোনরকম বড় দুর্ঘটনা হলে তার প্রভাব সরাসরি পরে জাপানের উপর। কিছুদিন আগেই তাইওয়ানে চীনা হামলার জন্য জাপানি সেনার সাহায্য প্রস্তাব শুনে তীব্র ক্ষুব্দ হয়ে ওঠে ড্রাগনের সেনা তারপরই এই ভিডিও বার্তা দিয়ে চিন সতর্ক করতে চাইলেন জাপানকে।