প্রকাশের চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট! মানুষের শরীরে যাতে বাসা বাঁধে করোনা তারই পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছিল চীনের উহানে

চীনের উহান প্রদেশের গবেষণাগারে প্রতিদিনই একের পর এক নাম না-জানা ভাইরাস নিয়ে গবেষণা চালানো হচ্ছিল। সেখান থেকেই কি ঘুরপথে করোনা ভাইরাসের উৎপত্তি? যার জেরে গোটা বিশ্বে এখনো পর্যন্ত ৪৪ লক্ষ মানুষের মৃত্যু হয়েছে ? প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে করোনা মহামারী প্রবেশ করার পর থেকেই। আমেরিকা বরাবরই উহানের ল্যাবরেটরি তথ্য সামনে আনার চেষ্টা করলেও বরাবরই চিন্তা কর্ণপাত না করে উড়িয়ে দিয়েছে তবে মার্কিন গবেষকরা করোনা ভাইরাসকে নিয়ে এখনো পর্যন্ত কোন চূড়ান্ত রিপোর্ট তৈরি করতে পারেনি।

তবে এবার তারা ওয়ান লাইভ সংক্রান্ত একটি রিপোর্ট প্রকাশ্যে আনলো, তাদের গবেষকদের দাবি উহানের ল্যাব থেকে ছড়িয়েছে করোনাভাইরাস।গত সোমবারই প্রকাশ করা হয়েছে এই রিপোর্ট রিপোর্টে স্পষ্ট করে জানানো হয়েছে যে আমেরিকা ও চীন সরকারের যৌথ সহযোগিতায় উহান ল্যাবে করোনা নিয়ে গবেষণা চলছিল। পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছিল যে কিভাবে করোনাভাইরাস কে মানুষের শরীরে সংক্রমিত করা সম্ভব।

এমন প্রমাণ রয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে রিপাবলিকান রিপোর্টে। রিপাবলিকান দের প্রতিনিধি মাইক ম্যাকাউন্ট জানিয়েছেন সোমবার একটি বিশেষ প্যানেল তৈরি করে এই রিপোর্ট প্রকাশ্যে আনা হয়েছে। এবং রিপোর্টে স্পষ্ট করে বলা হয়েছে উহানের ল্যাব থেকে ছড়িয়েছে করোনা, ফলে নতুন করে এই ইস্যু নিয়ে তদন্তের দাবি জানিয়েছেন তারা।

প্রসঙ্গত চীনের উহান শহর এই ২০১৯ সালের শেষের দিকে প্রথম ধরা পড়ে করোনাভাইরাস। উহান অঞ্চলের বাজারে প্রথম সংক্রমণ দেখা যায়। সেখান থেকেই গোটা চীন ছড়িয়ে যায় ভাইরাসটি। আর সেই ভাইরাসই কয়েক মাসের মধ্যে অতি মহামারী আকার ধারণ করে ছড়িয়ে পড়ে গোটা বিশ্বে। উহানের ল্যাবরেটরী নিয়ে বিশ্বের তাবড় তাবড় দেশের সন্দেহ রয়েছে।

চীন অবশ্য ব্যাখ্যা হিসেবে জানিয়েছিলেন অন্য প্রাণীর শরীরে থাকা করোনাভাইরাস উহানের মাছের বাজারে ঢুকে পড়ে মানুষের শরীরে। যদিও মাছের এই তত্ত্বকে স্বাভাবিকভাবেই উড়িয়ে দিয়েছেন রিপাবলিকান বিশেষজ্ঞরা তাঁদের দাবি ‘ উহান ইন্সটিটিউট অব ভাইরোলজি থেকেই করোনাভাইরাস ছড়িয়েছে বলে তাদের বিশ্বাস’।