করোনার থেকেও আরো বেশি ভয়াবহ মারাত্মক! ফিরে আসছে ১০০ বছর আগের পুরোনো মহামারী,চিন্তায় ঘুম উড়েছে বিজ্ঞানীদের

গত বছর থেকেই বিশ্বের প্রতিটি প্রান্তে প্রচন্ডভাবে দাপাদাপি শুরু করেছে করোনা নামক মারণ ভাইরাসটি। এখন সেই পরিস্থিতি কিছুটা আয়ত্তে এলেও পুরোপুরি কিন্তু করোনা নির্মূল হয়ে যায়নি। এবার বৈজ্ঞানিকরা আশঙ্কা করছেন এই মুহূর্তেই আসতে চলেছে আবার স্প্যানিশ ফ্লু (Spanish flu) নামক ভাইরাসটি যা মহামারির রূপ নিতে পারে।করোনা ভাইরাসের জন্য ইতিমধ্যেই সারা বিশ্বে প্রায় কয়েক কোটি মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন।

এই মুহূর্তে শীর্ষস্থানীয় ডব্লুএইচও বিশেষজ্ঞ ইনফ্লুয়েঞ্জা সম্পর্কে সতর্ক করে জানিয়েছেন যে স্প্যানিশ ফ্লু এর সংক্রমণ পরবর্তীকালে মহামারীর আকার ধারণ করতে পারে। ডব্লিউএইচওর ‘গ্লোবাল ইনফ্লুয়েঞ্জা নজরদারি ও রেসপন্স সিস্টেমের শীর্ষ সদস্য’ ডাঃ জন ম্যাককোলে জানিয়েছেন যে এমনিতেই এখন করোনা নামক মারন ভাইরাসের সাথে চলছে মানুষের সংঘর্ষ। আর অন্যদিকে বিভিন্ন বিজ্ঞানীরা বিভিন্ন ধরনের ভাইরাসকে সনাক্ত করার চেষ্টা করছেন যে করোনা রং পর আর কোন ভাইরাসগুলির পরবর্তীতে মহামারী রূপে আসতে পারে। ডাঃ ম্যাককলির মতে এখন সবথেকে বড় উদ্বেগ হতে পারে স্পানিশ ফ্লুকে (Spanish flu)  নিয়ে।

Spanish flu

ডাঃ জন ম্যাককোলির মতে, মানুষের এখন ইমিউনিটি পাওয়ার অনেকটাই বেড়ে গেছে। আর করোনা সংক্রমনের ভয়ে নিয়মিত হাত ধোওয়া এবং দূরত্ব বজায় রাখার ফলে প্রায় এক শতাব্দী ধরে ফ্লুয়ের আর তেমন কোনো সংক্রমণ দেখা যায়নি। তবে করোনার পরে মৌসুমী ফ্লু এর প্রাদুর্ভাব ঘটতে দেখা যেতে পারে। এছাড়াও ডাঃ জন আরও জানিয়েছেন যে ব্রিটেনে ইতিমধ্যেই সর্তকতা জারি হয়ে গেছে যে শীতকালে হয়তো ফ্লু এর প্রাদুর্ভাব আরো বাড়তে পারে।

Spanish flu

ব্রিটিশ মেডিকেল জার্নালে বলা হয়েছে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের থেকে ফ্লু-এ সংক্রমিত ব্যক্তির মৃত্যু হওয়ার আশঙ্কা অনেক বেশি থেকে যায়। ১৯১৮ সালে স্প্যানিশ ফ্লুর জন্য বিশ্বের এক-তৃতীয়াংশ মানুষের সংক্রমণ ঘটেছিল। আর এই ফ্লুতে প্রায় ৫ কোটি মানুষ মারা গেছিল। ডাঃ ম্যাককলি তাই বলেছেন যে এই ফ্লু-এর জন্য আমাদের সব সময় সতর্ক থাকতে হবে।