পুরনো ব্যাটারি থেকে ভারতে বিদ্যুতিক রিকশা বানাবে অডি, Nunam-র সাথে করল বড়োসড়ো চুক্তি স্বাক্ষরিত

পেট্রোল এবং ডিজেলের উত্তরোত্তর যেভাবে দাম বেড়ে চলেছে, তাতে করে প্রাকৃতিক জানুয়ারির ওপর নির্ভরতা হ্রাসকারী যানবাহন তৈরি করার দিকে বেশি নজর দেওয়া হচ্ছে। এই সমস্ত জ্বালানির উপর নির্ভরশীলতা কমানোর অন্যতম কারণ হলো, বায়ুমন্ডলে কার্বন নিঃসরণ কমানো। ধীরে ধীরে কার্বন-ডাই-অক্সাইড যেভাবে বেড়ে চলেছে তা অদূর ভবিষ্যতে আরো বেশি ক্ষতিকর প্রমাণিত হবে আমাদের এই পৃথিবীর জন্য তাই যেকোনো প্রাকৃতিক জ্বালানির উপর নির্ভরশীলতা ধীরে ধীরে কমে যাচ্ছে মানুষের।

বৈদ্যুতিক অটো মেকার অডি দূষণ কমানোর জন্য পুরনো ব্যাটারি ব্যবহার করে ভারতীয় রিকশাকে বৈদ্যুতিক যানে রূপান্তরিত করার জন্য নুনামের সঙ্গে অংশীদারত্ব করছেন। জার্মান ভারতীয় স্টার্টআপ নুনাম বৈদ্যুতিক রিকশা এবং চার্জিং পরিকাঠামো তৈরীর প্রযুক্তি সরবরাহ করবে। এই প্রোগ্রামের জন্য রিক্সার বিকল্প হল ইভি ব্যাটারিকে অপটিমাইজ করা।

অডি- নুণাম অংশীদারত্বে, নুনাম অডি দ্বারা ব্যবহৃত ইভি ব্যাটারি ব্যবহার করা হবে রিকশাকে বৈদ্যুতিক চালিত যানে রূপান্তরিত করার জন্য। নুনাম ভারতজুড়ে নতুন রিকশা তৈরি করার জন্য আরো সবুজ চার্জিং স্টেশন সরবরাহ করবে। এই রিক্সার ধারণাটি জার্মানির বার্লিনে ২০২২ গ্রীনটেক ফেস্টিভ্যালে প্রদর্শিত করা হবে।

এই বিষয়ে নুনামের সহপ্রতিষ্ঠাতা প্রদীপ চ্যাটার্জী বলেছেন, রিক্সা শহর এবং গ্রামীণ অঞ্চলে পরিবহণের জন্য ব্যবহার করা হয়। এটি খুব শক্তিশালী কিন্তু ভারী নয়। নুনমের জন্য শক্তি, পরিসীমা এবং ওজনের প্রয়োজনীয়তা সর্বাগ্রে দেখা হয়। কোম্পানি ভারতে নতুন এই রিক্সা বিতরণ করবে মূলত পরিবেশ বান্ধব ব্যাপারটিকে মাথায় রেখে। কোম্পানি চার্জিং স্টেশনগুলোতে বৈদ্যুতিক উৎপাদনের জন্য সৌর প্যানেল ব্যবহার করবে।

এই নতুন সবুজ উদ্যোগ ভারতসহ বিভিন্ন দেশে সমূহ প্রভাব ফেলতে পারে। দেশে কার্বন নিঃসরণে অটোরিকশার বড় অবদান রয়েছে। এক্ষেত্রে ই রিক্সার মাধ্যমে প্রত্যেকের জন্য ধূসর নির্গমন মুক্ত বিকল্প প্রদান করা ভীষণ ভাবে কার্যকর মনে মনে করা হবে। তবে এটি কবে থেকে উৎপাদন হবে তা এখনো জানা যায়নি।