নিম্নচাপের জেরে আগামী 24 ঘন্টা বড়োসড়ো দুর্যোগের আশঙ্কা! সতর্কবার্তা আবহাওয়া দপ্তরের

এই কদিন মাঝেমাঝেই বৃষ্টির আবির্ভাব ঘটছে। উত্তরপ্রদেশের নিম্নচাপ এলাকা থেকে মৌসুমী অক্ষরেখা উত্তর বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত বিস্তৃতি লাভ করেছে আর এই মৌসুমী অক্ষরেখার সক্রিয় হওয়ার জন্যই দক্ষিণবঙ্গের বেশ কিছু এলাকায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর পাওয়া গেছে পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান, বীরভূম, বাঁকুড়া জেলায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

পাশাপাশি উপকূলবর্তী উড়িষ্যার কাছাকাছি জেলাগুলোতে সারা সপ্তাহজুড়েই বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। আগামীকাল থেকে বৃষ্টির পরিমাণ বাড়তে পারে। উত্তর ও দক্ষিণ 24 পরগনা সহ পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

আজ সকাল থেকে অস্বস্তিকর গরমের পরিস্থিতি থাকলেও কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে আংশিক মেঘলা আকাশ। এর সাথে দু-এক পশলা বৃষ্টির সম্ভাবনার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। গতকাল রাতের বৃষ্টিতে কলকাতার বেশ কয়েকটি এলাকায় জল জমেছে। আমহার্স্ট স্ট্রিট, কলেজস্ট্রিট, ঠনঠনিয়া জলের তলায় রয়েছে। গঙ্গায় জোয়ারের জন্য জল বেশিক্ষণ ওই এলাকাগুলিতে জমে থাকবে।আবহাওয়া,

এর পাশাপাশি আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে উত্তরবঙ্গে বৃষ্টির পরিমাণ সামান্য হলেও বারতে পারে পরিমাণ। পরিসংখ্যান অনুযায়ী জুন থেকে জুলাই মাসে উত্তরবঙ্গের বৃষ্টির পরিমাণ 15% কাছাকাছি ঘাটতি রয়েছে। 27 থেকে 30 শে জুলাই এর মধ্যে হাওড়ায় বৃষ্টিপাতের পরিমাণ মিলিলিটার। গত চার দিনেই কোলকাতার বৃষ্টির পরিমাণ দাঁড়িয়েছে 270.9 মিলি লিটার। বেশি বৃষ্টি হওয়ার ফলে দার্জিলিংয়ের আপার সোনাদা অঞ্চলে ধ্বস নেমেছে।