বিধানসভা ভোটে নজরদারির ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হবে ড্রোনের…

ছত্রিশগড়ের বিধানসভা নির্বাচন আর বেশি দেরি নেই বললেই চলে। ভোট নিয়ে তৎপরতা তুঙ্গে। সমস্ত দলগুলি জোরকদমে প্রচার শুরু করে দিয়েছে। তবে পুলিশ প্রশাসনের তরফ থেকে মাওবাদী এলাকাগুলিতে নজরদারি একটু বেশি রাখা হয়। বিশেষ করে সুকমা জেলার বেজি গ্রামে ভোটের সময় বেঁচে থাকা একটা বিশাল কঠিন ব্যাপার বলা যেতে পারে। কারণ সেখানে যে কোন সময় মাওবাদীদের হামলা হয়ে যেতে পারে। তাই এবার পুলিশ প্রশাসন নিরাপত্তা আরও কঠিন করতে 50 টি ড্রোন ব্যবহার করবে বলে জানা গিয়েছে।কয়েক বছর আগে পর্যন্ত এখানকার মানুষ গ্রাম ছেড়ে অন্য জায়গায় চলে গিয়েছেন। বা কেউ একটু কাজের সন্ধানে একটু শান্তির জায়গা খোঁজার জন্য অন্ধ্রপ্রদেশের চলে গিয়েছেন। তবে আগেকার মতন এখন পরিস্থিতি নেই। এখন পরিস্থিতি অনেক ভালো হয়ে গেছে।

মাওবাদীদের রমরমা অনেকটাই কমে গেছে এখন। যারা গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে গেছেন তাদের মধ্যে প্রায় 85 টি পরিবার আবার গ্রামে ফিরে এসেছে। তবে এবার মনে করা হচ্ছে ভোটের সময় এলাকাবাসীরা আরো নিরাপত্তা পাবেন। গত কয়েক বছর ধরে এলাকায় বুথ তৈরি হলেও। বুথে ভয়ে হোক বা যে কারণে হোক গ্রামবাসীরা ভোট দিতে আসত না। ফলে পুরোপুরি ফাঁকা থাকতো বুথ। এ অবস্থায় এই বছর আর হবে না বলে প্রশাসন নিশ্চিত করছে। এলাকাজুড়ে 500 কোম্পানির সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন করা হচ্ছে। প্রশাসন থেকে বলা হয়েছে সব মিলিয়ে মোট 1 হাজার কোম্পানি সেনা এ এলাকায় টহল দেবেন। এর পাশাপাশি ও 50 টি ড্রোন ক্যামেরা নজরদারি চালানো হবে। আগের নির্বাচনে 20 টি  হামলার ঘটনা ঘটেছে ফলে যে জায়গাতে হামলা হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি সেসব জায়গা থেকে বুথ সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। তবে যাই হোক এবার যে সম্পূর্ণ নিরাপত্তা ভোট হবে তা নিশ্চিত করতে চলেছে সরকার।

Related Articles

Close