দেশনতুন খবরবিশেষলাইফ স্টাইল

কেরল সহ একাধিক রাজ্যকে এখনই লকডাউন শিথিল না করার পরামর্শ কেন্দ্রের..

এই মুহূর্তে নতুন করে করোনা ভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা কম রয়েছে কেরলে, আর সেটি দেখে আজ রাজ্যের দুটি জোনে দেশজুড়ে যে লকডাউন চলছে সেটি শিথিল করে দেওয়ার ঘোষণা করেছিল বাম শাসিত কেরল রাজ্য। এর পাশাপাশি এই একই পথে হেঁটে লকডাউনকে হালকা করার পরিকল্পনা করেছিল কম করোনা আক্রান্ত দেশের বিভিন্ন রাজ্য গুলি। তবে এবার সেই বিষয় নিয়ে রাজ্যগুলিকে সতর্ক করা হল কেন্দ্রের তরফ থেকে।

কেন্দ্রের তরফ থেকে রাজ্যগুলিকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে কিছু সময়ের জন্য স্বস্তি আনতে গিয়ে এক ধাক্কায় বেড়ে যেতে পারে আবারো করোনা সংক্রমণ তাই আরও কিছুদিন অপেক্ষা করতে হবে কেরল আর অন্যান্য আরও কয়েকটি রাজ্যকে এই লকডাউনকে শিথিল করতে। আর এই নির্দেশটি জারি করা হয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে। সাবধানের মার নেই, তাই আলাদা করে কেরোল সরকারকে সে বিষয়ে চিঠি দিয়ে ইতিমধ্যেই সতর্ক করা হয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে।কারণ কেরল সরকারের তরফ থেকে তাদের রাজ্যে দুটি জোনে লকডাউন শিথিল করার পরিকল্পনা করা হয়েছিল এক্ষেত্রে কিছু ব্যক্তিগত যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা তোলার পাশাপাশি, বইয়ের দোকান, সেলুন, পাশাপাশি রেস্তোরাঁ খোলার ঘোষণা করা হয়েছিল কেরলের সরকারের তরফ থেকে। তবে এখানেই শেষ নয় কেরল সরকার এর পাশাপাশি সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কিছু কম দূরত্বের যে বাস গুলো রয়েছে সেগুলো ও চালানো যাবে। তবে আবারো যে এই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ অত্যাধিক মাত্রায় বেড়ে যেতে পারে এগুলোর ভিত্তিতে কেরল সরকারকে ইতিমধ্যে চিঠি পাঠিয়ে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফ থেকে।

যেহেতু এই মুহূর্তে কিছুটা হলেও নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে এ করোনা সংক্রমণ তবে অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসের ফলে পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে বেশি সময় লাগবে না, তাই সেদিকটায় কেন্দ্রের তরফ থেকে তুলে ধরা হয়েছে কেরল সরকারের জন্য।এর আগে যেমনটা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ঘোষণা করেছিলেন আগামী 20 ই এপ্রিলের পর থেকে, যে জায়গাগুলিতে করোনা সংক্রমনের সংখ্যা কম থাকবে সেই জায়গাগুলিতে ধীরে ধীরে লকডাউনের যে ব্যবস্থা রয়েছে সেটিকে শিথিল করা হবে।আর সেই অনুযায়ী রবিবার দিন বিভিন্ন রাজ্যগুলি কোন কোন ক্ষেত্রে লকডাউন শিথিল করা হবে সে বিষয়ে নির্দেশিকা জারি করে। আর এই ঘটনার পরই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রসচিব অজয় ভাল্লা চিঠি লিখে রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গুলিকে সবধান করেন। আর তারপরই কেন্দ্রের তরফ থেকে যে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে সেটি কি অক্ষরে অক্ষরে পালন করার নির্দেশ দেন প্রশাসনকে। আর যে পুরো বিষয়টি রয়েছে সেটি শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রেখে বিধি নিয়ম মেনে পালন করার কথাও বলেন তিনি এই চিঠিতে।

Related Articles

Back to top button