আপনি কি জানেন এক টুকরো ফটকিরি পরিবর্তন করতে পারে আপনার ভাগ্যের।

মনে করা হয় বিভিন্ন জনের ওপরবিভিন্ন গ্রহ প্রভাব বিস্তার করে। বাস্তুশাস্ত্রে যারা বিশ্বাসী তারা মনে করেন কিছু অশুভ বাস্তুর প্রভাবেও জীবনে উন্নতি ও বাধার সৃষ্টি হতে পারে। পৃথিবীতে এমন কোনো মানুষ নেই যাদের কোন সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়নি। সবারই জীবন কিছু না কিছু সমস্যায় ভরা। কিন্তু এরও সমাধান রয়েছে। এসব সমস্যা থেকে বাঁচতে বাস্তুশাস্ত্রে একটি টোটকা ও আছে যা কাজে লাগতেও পারে। জ্যোতিষ ও বাস্তুশাস্ত্র মনে করেন ফটকিরি অশুভ শক্তির বাধা কমাতে সক্ষম এবং এটি বাধা কাটিয়ে জীবনে উন্নতির পথে এগিয়ে যেতেও সাহায্য করে। আমরা আপনাদের জানাবো ফটকিরির সাহায্যে কিভাবে আপনারা এ সমস্যার সমাধান পেতে পারেন।

(ক) আপনি পরিশ্রম করেই যান কিন্তু ভাগ্য আপনার কোনদিনই সাহায্য করে না, যদি আপনার এমনি হয়ে থাকে তাহলে একটি কালো কাপড়ে এক টুকরো ফটকিরি নিয়ে দরজায় ঝুলিয়ে রাখুন , এর ফলে নেতিবাচক শক্তির প্রভাব কমবে এবং আপনার ভাগ্যের উন্নতি ঘটবে।

(খ) বাস্তুশাস্ত্রে এটাও বিশ্বাস করে যে একটি ফটকিরি নেতিবাচক শক্তিকে শুষে নিতে পারে, যেমন ধরুন আপনার স্নানের ঘরে একটি বাটিতে ফিটকিরি রেখে দিন এবং প্রতি মাসে ফটকিরি একবার করে বদলাতে হবে এবং বাড়ির মধ্যে থাকা নেতিবাচক শক্তিকে এটি শুষে নেবে ।

(গ) তৃতীয় পদ্ধতিটি হল ফটকিরির একটি বড় টুকরো নিয়ে সেটি গুড়ো করে নিন এবং ঘরের বিভিন্ন কোনায় সেটি ছড়িয়ে দিন এর ফলে, ঘরে কোন অশুভ শক্তি বা নেতিবাচক শক্তি প্রবেশ করতে পারবে না।

(ঘ) আপনিও যদি নজর লাগায় বিশ্বাসী ,তাহলে পা থেকে মাথা পর্যন্ত সাতবার ফটকিরি দিয়ে ঘষে নিন এবং সে ফটকিরি আগুনে ফেলে দিন । এতে আপনার আর নজর লাগবে না।

(ঙ)এমন অনেকেই আছে যারা ঘুমের মধ্যে ভয়ংকর স্বপ্ন দেখেন। তাদের উদ্দেশ্যে বলছি শোওয়ার সময় মাথার পাশে এক টুকরো ফটকিরি রেখে দিন। এর ফলে আশেপাশে থাকা নেতিবাচক শক্তি কে ফিটকিরি টেনে নেবে। যার ফলে আপনার ঘুমে কোন ব্যাঘাত ঘটবে না।