ভুল করেও ক্লিক করবেন না আয়কর বা SBI- এর নামে আসা এই দুই মেসেজে- কলকাতা পুলিশ…

দেশ যবে থেকে ডিজিটাল হয়েছে তবে থেকে লেনদেনের ক্ষেত্রে অনেকখানিই সুবিধা হয়েছে, তবে তার সাথে সাথে ব্যাংক জালিয়াতি ও বেড়েছে অনেকখানি। ইন্টারনেটে দুনিয়া হ্যাকাররা সর্বদা তৎপর রয়েছে কীভাবে এই নতুন প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে চটজলদির মধ্যে মানুষের কষ্ট ভাবে অর্জিত টাকা নিজের করতে পারে। তবে এখন এই প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে এক নতুনভাবে জালিয়াতি শুরু করেছে এই নেট দুনিয়ার হ্যাকাররা, প্রাপ্ত খবর থেকে জানতে পারা গেছে এই জালিয়াতি করতে একটি মেসেজ হ্যাকাররা পাঠাচ্ছে সাধারণ মানুষ-এর স্মার্টফোনে।

আর এই দুই নির্দিষ্ট জালিয়াতি মেসেজ কে নিয়ে রাজ্যের জনগণকে সতর্ক করতে কলকাতা পুলিশ তাদের সোশ্যাল মিডিয়াতেও একটি পোস্টও করেছেন। ব্যাংকের গ্রাহকদের বোকা বানিয়ে করা হচ্ছে এই মেসেজটি এই মেসেজটি প্রথমটি হলো আয়কর দপ্তরের নাম করে করা একটি ভুয়ো ম্যাসেজ। যেখানে এই মেসেজটিতে লেখা থাকছে আপনি আয়কর রিফান্ড বাবদ 20 হাজার 490 টাকা পাওয়ার জন্য অনুমোদন পেয়েছেন।

আর এই টাকাটি আপনি আপনার ব্যাংকে নিতে চাইলে আপনার ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট নম্বর দিয়ে দয়া করে ভেরিফাই করিয়ে নিন। আর আপনার যদি মনে হয় আপনার অ্যাকাউন্ট নম্বরটি ভুল রয়েছে তাহলে নিচের লিংকে ক্লিক করে সেটিকে সঠিক করে নিন। আর বাস এই নিচের লিংকে ক্লিক করলে আপনি হ্যাকারদের খপ্পরে পড়ে গেলেন। দ্বিতীয় যে মেসেজটি করা হচ্ছে সেটি এসবিআই ব্যাংকের নামে করা একটি ভুয়ো মেসেজ, যেখানে লিখা রয়েছে প্রিয় এসবিআই গ্রাহক আপনার সেভিং অ্যাকাউন্ট সাসপেন্ড করা হচ্ছে ভুল সাইন করার জন্য আর নিজের অ্যাকাউন্টকে পুনরায় চালু করতে অবিলম্বে এই নিচের দেওয়া লিংকে ক্লিক করুন।

আপনাদের বলে রাখি এটি একটি ভুয়ো মেসেজ ভুল করেও এর খপ্পরে পড়বেন না। আরো বলে রাখি আয়কর বিভাগের নামে অথবা এসবিআই এর তরফ থেকে কখনোই এই ধরনের মেসেজ গ্রাহককে পাঠানো হয় না। এসবিআই (‍SBI) ব্যাংক এর ক্ষেত্রে কোন প্রকার প্রবলেম হলে সে ক্ষেত্রে গ্রাহককে ব্যাংকে যোগাযোগ করতে বলা হয় তবে কোন প্রকার এসএমএসের মাধ্যমে কোন কিছু ক্লিক করার অনুমোদন দেয় না এসবিআই ব্যাঙ্ক। অতএব এই বিষয় নিয়ে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে কলকাতা পুলিশের তরফ থেকে।

Related Articles

Close