বিজেপি থেকে বাংলার ভবিষ্যতের মুখ্যমন্ত্রী কে হবেন ? – আজ এই প্রশ্নের জবাব দিলেন দিলীপ ঘোষ..

লোকসভা ভোটের ফলাফল দেখে বিশ্লেষণ করার পর বাংলায় কি একুশে সরকার পরিবর্তন হতে পারে বলে রাজনৈতিক মহলের একাংশ ইঙ্গিত দিয়েছেন। 2021 এ বাংলার ভার যদি গেরুয়া শিবিরের হাতে আছে তাহলে মুখ্যমন্ত্রী গদিতে কে বসবেন? এই প্রশ্ন নিয়ে অনেক কৌতুহল রয়েছে রাজনৈতিক মহলে। এই পরিপেক্ষিতে এবার দিলীপ ঘোষ সরাসরি এই প্রশ্নের উত্তর দিলেন। 2021 সালে বাংলায় বিজেপি ক্ষমতায় এলে কে মুখ্যমন্ত্রী হবেন দিলীপ ঘোষ?

এই প্রশ্নের উত্তরে রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, ” দল আমাকে বিধানসভায় লড়তে বলেছিল লড়েছি। লোকসভা লড়তে বলেছিল লড়েছি। দল যদি এরপর আমাকে আরো কোন দায়িত্ব দেয় আমি সেটা পালন করবো, আপাতত আমি এখন সংসদে যাচ্ছি।” এছাড়া দিলীপ ঘোষ আরও বলেন, “বাংলার ভবিষ্যৎ এখন বিজেপির হাতে রয়েছে।”এবারের লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় বিজেপি যে পরিমাণে জয়লাভ করেছে তা আর বলার অপেক্ষা থাকে না।

42 টি সিটের মধ্যে বিজেপি পেয়েছে 18 টি। এই বিপুল পরিমাণে উত্থানের ফলে 2021 এ বাংলায় বিজেপি ক্ষমতায় আসতে পারে বলে অনেকে মনে করছেন। যদিও লোকসভা নির্বাচনে অমিত শাহের 37 টি সিট পাওয়ার টার্গেট পূরণ না হলেও, বাংলায় যেভাবে শাসক দলের বিরুদ্ধে গেরুয়া শিবির লড়েছে তা প্রশংসনীয়। রাজনৈতিক মহলে 19 এর এই লোকসভা নির্বাচনে লড়াই কে সেমিফাইনালের সাথে তুলনা করছেন। সেমি ফাইনাল ম্যাচে বিজেপি দুরন্ত পারফর্মেন্সের পর 2021 এর ফাইনাল ম্যাচ জেতার জন্য বঙ্গ বিজেপির প্রস্তুতি তুঙ্গে।

দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায় বঙ্গের আরো গুরুত্বপূর্ণ নেতারা 2021 এর ফাইনাল ম্যাচ কে পাখির চোখ করে রেখেছে। 2021 সালে বঙ্গ বিজেপি কে 180 টি আসন টার্গেট করতে বলেদিয়েছে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। তবে 2021 এ বাংলায় বিজেপি এলে কে মুখ্যমন্ত্রী হবেন দিলীপ না মুকুল না আরো অন্য কেউ তা নিয়ে এখনও ধোঁয়াশা রয়েছে। এবারের লোকসভা নির্বাচনের গেরুয়া শিবিরের এত ভাল সাফল্যের পিছনে মুকুল রায়ের যে যথেষ্ট পরিশ্রম রয়েছে তা অস্বীকার করার কোন জায়গা নেই।

তার হাত ধরেই শাসকদলের হেভিওয়েট নেতারা একে একে বিজেপির পতাকা হাতে তুলে নিয়েছেন। অপরদিকে দিলীপ ঘোষের পরিশ্রম টাও যে কতটা গুরুত্বপূর্ণ ছিল সেটাও আর বলার অপেক্ষা থাকে না। 2016 সালের বিধানসভা নির্বাচনের পর 2019 এর বিধানসভা নির্বাচনে জয়ের ধারা বজায় রেখেছেন দিলীপ ঘোষ। এমনকি রাজ্যে বিজেপি সংগঠন কে আরও মজবুত করতে তার ভূমিকা অপরিসীম। খবর সূত্রে জানা গিয়েছে এই দুই হেভিওয়েট নেতাদের মধ্যে কেউই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হতে চাননি। এর পিছনে একটি কারণ হল যে তাঁরা যদি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হয়ে যান তাহলে রাজ্যে বিজেপি সংগঠন আলগা হয়ে যেতে পারে।

আর এই সময় যদি বিজেপি সংগঠন আলগা হয়ে যায় তাহলে 2021 এ বাংলায় বিজেপির ক্ষমতায় আসা প্রায় অসম্ভব হয়ে উঠবে। আর এমনিতেও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী না হলে মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যাবে বলে তিনি মনে করছেন। এই পরিপ্রেক্ষিতেই তিনি এ মন্তব্য করেছেন বলে রাজনৈতিক মহলের একাংশ মনে করছেন।