নতুন খবরবিশেষলাইফ স্টাইল

আপনি কী জানেন গ্যাস সিলিন্ডারের সাথেই রয়েছে 50 লক্ষ টাকার বীমার ব্যবস্থা, না জানলে অবশ্যই…

এখন ভারতবর্ষের প্রতিটি গৃহস্থের কোনায় কোনায় পৌঁছে গিয়েছে গ্যাসের ব্যবস্থা, এমনকি প্রত্যন্ত এলাকাতেও মানুষ এখন গ্যাসে রান্না করছেন। তাছাড়া কেন্দ্রীয় সরকারের উজ্জ্বলা যোজনা দরুন এখন প্রতিটি গরিব মানুষই প্রায় গ্যাসের ব্যবহার করতে পারছেন। তবে গ্যাসের ব্যবহার থাকলেও অনেকেই কিন্তু গ্যাসের সাথে দিয়ে থাকা একাধিক সুবিধার কথা জানেন না। এমনকি যখন নতুন গ্যাসের কানেকশন করা হয় তখনও কিন্তু সেই সুবিধার কথা জানানো হয়ে থাকে না ক্রেতা দের। আর এই সুবিধার মধ্যে একটি কথা আজকে আপনাদের মধ্যে তুলে ধরবো গ্যাস ব্যবহারকারী অধিকাংশই হয়তো এই কথাটি জানেন না।

আপনারা কী জানেন গ্যাস ইউজারদের ক্ষেত্রে 50 লক্ষ টাকা পর্যন্ত বীমা কভার দেওয়া হয়ে থাকে। হ্যাঁ অবাক করার মতো ঘটনা লাগলেও এটাই সত্যি,আর এই সুবিধাটি প্রত্যেকটি গ্ৰাহকদের ক্ষেত্রেই দেওয়া হয়ে থাকে। যখনই কোনো গ্রাহক নতুন গ্যাস কানেকশন নিয়ে থাকে তখনই সেই সংশ্লিষ্ট গ্ৰাহককে এই বীমা করে দেওয়া হয়। কিন্তু কখনোই কোম্পানি তরফে এই বিষয়ে জানানো হয় না সেই সংশ্লিষ্ট গ্ৰাহককে এমন কী LPG ডিলারদের তরফ থেকেও তা জানানো হয় না। তবে শুধু তাই নয় এক্ষেত্রে অধিকাংশ গ্রাহকদেরও এই বিষয়টি নিয়ে জানার কোনো ইচ্ছে থাকে না।

যার ফলে পুরো বিষয়টি অজানা থেকে যায়। এক্ষেত্রে গ্যাস কোম্পানী গুলির বিভিন্ন ওয়েবসাইটে যে তথ্য রয়েছে সেখানে বলা হয়েছে সিলিন্ডারের কারণে যদি কোনরকম প্রাণহানি কিংবা সম্পত্তির ক্ষতি হয়ে থাকে তাহলে কিন্তু বিশাল অংকের একটা বীমার জন্য আবেদন করা যেতে পারে।তবে অধিকাংশ ক্ষেত্রে বড়সড় দুর্ঘটনা হওয়ার পরও এই বিষয়ে গ্ৰাহকদের কাছে তথ্য না থাকায় সে বীমার জন্য আবেদন করা হয়ে থাকে না।

তবে এখন প্রশ্ন কারা দিয়ে থাকে এই ইন্সুরেন্স ক্লেম- এক্ষেত্রে যদি কোন বড়সড় দুর্ঘটনা হয়ে থাকে তাহলে স্থানীয় গ্যাসের ডিলাররা প্রথমে সংশ্লিষ্ট গ্যাস ও সংস্থাকে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানার পাশাপাশি বীমা সংস্থাকেও জানানো হয় এক্ষেত্রে।আর এক্ষেত্রে এই যে বীমার ক্লেম টি রয়েছে সেটি পাওয়ার ক্ষেত্রে যে সমস্ত নিয়মকানুন গুলো রয়েছে সে ক্ষেত্রে স্থানীয় গ্যাসের ডিলাররা সমস্ত রকম সাহায্য করবে। এমনকি এর জন্য যে ফর্মগুলো পূরণ করতে হবে সেগুলির জন্যও ডিলাররা সবরকম সাহায্য করবে।এক্ষেত্রে এই বীমা পাওয়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই পুলিশের কাছে এফআইআরের কপি প্রয়োজনীয় হবে।

বলে রাখি এক্ষেত্রে কিন্তু ইন্ডিয়ান হোক কিংবা এইচপি গ্যাসই হোকনথিভূক্ত গ্রাহক স্থানীয় অফিশিয়াল গ্যাসের দোকান থেকে নতুন গ্যাসের কানেকশন নিলেই এই বীমার সুবিধা পাবেন। এক্ষেত্রে পুলিশের এফআইআর কপি ছাড়াও লাগবে মেডিকেল সার্টিফিকেট, পোস্ট- মর্টেম রিপোর্ট এবং ডেট সার্টিফিকেট। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে এই বীমা থাকা সত্ত্বেও অনেকেই এটি পেয়ে থাকেন না কারণ এমন অধিকাংশ ক্ষেত্রে গ্রাহকেরা রয়েছেন যারা গ্ৰাহক পাইপ, রেগুলেটরের ISI এর চিহ্ন ছাড়াই জিনিসপত্র ব্যবহার করে থাকেন। আর এটি করে থাকলে বীমা সংস্থা কখনোই বীমার টাকা দেবে না সেই বীমার জন্য আবেদনকারীকে।তাছাড়া এই দুর্ঘটনা ঘটার 30 দিনের মধ্যেই যদি কোন গ্রাহক বীমার জন্য ক্লেম না করে থাকেন তাহলেও কিন্তু সেক্ষেত্রে দেওয়া হবে না কোনো বীমা যা এই বীমার শর্তেই উল্লেখ করা রয়েছে।

Related Articles

Back to top button