আপনার মোবাইলে কী Tik Tok Pro ডাউনলোড করার মেসেজ এসেছে? তাহলে সময় থাকতে সাবধান হয়ে যান নইলে এর মাশুল গুনতে হবে আপনাকেই…

সম্পত্তি গত কয়েকদিন ধরে নতুন জালিয়াতির শিকার হচ্ছেন দেশের মানুষজন যেখানে অনেকের মোবাইলে Tik Tok Pro ডাউনলোড করার জন্য মেসেজ আসছে আর যদি এই ধরনের মেসেজ আপনাদের মধ্যে কারও মোবাইলে এসে থাকে তাহলে এখনি সময় থাকতে সাবধান হয়ে যান, নাহলে আপনিও হতে পারেন এর শিকার। টিক টক এর তরফ থেকে কোনো নতুন ভার্সন Tik Tok Pro বলে কিছু আসেনি। তবে যেমনটা আমরা জানি ভারত সরকারের তরফ থেকে গত কয়েকদিন আগে ভারত-চীন সীমান্ত বিবাদের জেরে 59 টি চীনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

আর ভারতের মধ্যে এই চীনা অ্যাপ গুলির মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় একটি অ্যাপ ছিল Tik Tok। শুধু তাই নয় ভারতের মধ্যে এই অ্যাপের জনপ্রিয়তা এতটাই ছিল যে ভারতে এই অ্যাপ ব্যবহারকারীর সংখ্যা ছিল কম বেশি করে 20 কোটির কাছাকাছি। তাই ভারতে এই অ্যাপের জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগিয়ে সাইবার-অপরাধীরা হোয়াটসঅ্যাপ বা এসএমএস এর মাধ্যমে Tik-Tok এর নতুন ভার্সন Tik Tok Pro বলে মেসেজ পাঠাতে শুরু করে দিয়েছে যেখানে এই মেসেজটি তে লেখা রয়েছে এবার থেকে আপনি যদি Tik Tok উপভোগ করতে চান তাহলে নীচের দিকে থাকা লিংকে ক্লিক করুন আর ডাউনলোড করে নিন Tik Tok pro অ্যাপটি।

আর এবার যদি আপনি এই লিংকে ক্লিক করেন তাহলে Tik Tok অ্যাপ এর আইকন আসবে যদিও প্রাথমিক ভাবে দেখে এটিকে আসল মনে হবে আপনার তবে ডাউনলোড করা হলে অন্যান্য অ্যাপ এর মত আপনার থেকে ক্যামেরা, মাইক এবং নানান যে পরিষেবাগুলি রয়েছে সেগুলি পারমিশন চাইবে আর একবার এগুলির মঞ্জুরি দিয়ে দিলেই আপনিও হতে পারেন এই জালিয়াতির শিকার।কারণ যেমনটা কেন্দ্রে তরফ থেকে এর আগেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে ভারতের বাজারে যে 59 টি চিনা অ্যাপ্লিকেশন ব্যান করে দেওয়া হয়েছে সেগুলি দেশের জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থেই করা হয়েছে।

 

 


শুধু চীনকে শিক্ষা দেওয়ার জন্যই নয় বর্তমানে সরকারের তরফ থেকে যে অ্যাপ গুলি ব্যান করে দেওয়া হয়েছে সেগুলি দেশের সার্বভৌমত্ব, অখণ্ডতা ও দেশের সুরক্ষার জন্য অতি আবশ্যক ছিল।আর সরকারের তরফ থেকে যখন থেকে এই অ্যাপগুলি নিষিদ্ধ করে দেওয়া হয়েছে তখন থেকেই এটি গুগল প্লে স্টোর কিংবা অন্য কথা থেকেও ডাউনলোড করা যাচ্ছে না। সুতরাং যে কোন লিংক থেকে ভুল করেও এই অ্যাপ ডাউনলোড করার জন্য ক্লিক করবেন না তাছাড়া আপনার মোবাইলের যাবতীয় তথ্য চলে যাবার আশঙ্কা রয়েছে।শুধু মোবাইলে তথ্য নয় এর পাশাপাশি আপনার ব্যাংকে যাবতীয় তথ্যও চলে যেতে পারে এই সাইবার অপরাধীদের কাছে সুতরাং সাবধান থাকা এবং এই ধরনের কোনো লিংকে ক্লিক না করাই বুদ্ধিমানের কাজ বলে সতর্ক করছেন বিশেষজ্ঞরা।

Related Articles

Back to top button