মাত্র ২১ বছর বয়সে অভিনেতা ধনুশ করে নিয়েছিলেন রজনীকান্তের মেয়েকে বিয়ে, সিনেমাকেও হার মানাবে তাদের এই প্রেম কাহিনী

দক্ষিণী অভিনেতাদের স্টাইলের কথা আলাদা করে বলার কিছু নেই। দক্ষিণী অভিনেতাদের শারীরিক গঠন এবং স্টাইল দেখে মুগ্ধ হয়ে যায় সকলে। তবে এই সমস্ত অভিনেতাদের মধ্যে এমন একজন আছেন, যাকে দেখলে প্রথমেই আপনি বলে উঠবেন, আপনি কি করে সুপারস্টার হলেন? কথা বলছি দক্ষিণী সুপারস্টার ধনুশের কথা। বিখ্যাত সুপারস্টার রজনীকান্তের জামাই ইনি। শুধুমাত্র দক্ষিনে নয়, বলিউডেও সমানভাবে সকলের মন জয় করে নিয়েছেন তিনি। দুর্দান্ত অভিনেতা অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে অভিনয় করেছিলেন তিনি।

একজন সুপারস্টার হবার পাশাপাশি তিনি রজনীকান্তের জামাই, এটাও তাঁর কাছে একটি বড় পরিচয়। তিনি বিয়ে করেছেন ঐশ্বর্যকে। না অমিতাভ বচ্চনের পুত্রবধূ ঐশ্বর্য নয়, দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির ভগবান রজনীকান্তের জ্যেষ্ঠ কন্যা ঐশ্বর্যকে। দীর্ঘদিন প্রেম করে অবশেষে ২০০৪ সালের ১৮ ই নভেম্বর ঐশ্বর্যকে বিয়ে করেন ধনুশ।

ধনুশের সঙ্গে ঐশ্বর্যের পরিচয় করিয়ে দেন রজনীকান্ত নিজেই। তামিল সিনেমায় সবেমাত্র পা রেখেছিলেন তখন অভিনেতা ধনুশ। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সিনেমা কাদাল কন্দেইন, সিনেমার বিশেষ প্রদর্শনীতে সপরিবারে এসেছিল রজনীকান্ত। সেখানেই ঐশ্বর্যের সঙ্গে দেখা হয় ধনুশের।

অপরদিকে ঐশ্বর্য ছিলেন অভিনেতার বোনের বান্ধবী, ফলে পরিচয় আরো একটু গাঢ় হয়ে যায় খুব তাড়াতাড়ি। এরপরই একাধিক সিনেমা হিট হয়ে যায় অভিনেতার, রাতারাতি তারকা বনে যান ধনুশ। এরপরই ঐশ্বর্য এবং ধনুশের প্রেম সকলের সামনে প্রকাশ্যে এসে যায়, ফলে ক্রুদ্ধ হয়ে যান দুই পরিবার।

অবশেষে সকলকে রাজি করিয়ে ২০১৪ সালে তাদের বিয়ে হয়ে যায়। বিবাহ কালে ঐশ্বর্য্যের বয়স ছিল ২৩ বছর, ধানিশের বয়স ছিল ২১ বছর। দীর্ঘ ১৬ বছরের বিবাহ জীবনে তাঁদের রয়েছে দুটি সন্তান, যাত্রা রাজা এবং লিঙ্গ রাজা। বর্তমানে সুখে সংসার করছেন এই দম্পতি।